বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই, ২০২৪, ঢাকা

পিটিআইয়ের ওপর যত নিপীড়ন হবে, জনসমর্থন তত বাড়বে: ইমরান

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০১ জুন ২০২৩, ০৮:৪৬ পিএম

শেয়ার করুন:

পিটিআইয়ের ওপর যত নিপীড়ন হবে, জনসমর্থন তত বাড়বে: ইমরান
পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান

রাজনৈতিক দল পিটিআই-এর ওপর যত নিপীড়ন হবে, জনসমর্থন তত বাড়বে। পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান এ মন্তব্য করেছেন। 

বুধবার তিনি বলেছেন, ৯ মে তারিখের বিক্ষোভকে ইস্যু করে পিটিআই (পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ)-এর বিরুদ্ধে শুরু হওয়া নিপীড়ন ও নির্যাতন এ দলটির জন্য শাপে বর হয়েছে। এর ফলে পিটিআই-এর প্রতি জনগণের সহানুভূতি ও সমর্থন বেড়েছে। এছাড়া দলটির ভোটব্যাংকের আকারও বৃদ্ধি পেয়েছে।


বিজ্ঞাপন


একের পর এক টুইট বার্তায় পিটিআই দলের চেয়ারম্যান ইমরান খান তার দলকে ভাঙার দায়ে সরকারকে কটাক্ষ করেছেন। তিনি বলেছেন, ‘দলের সদস্যদের পিটিআই ছাড়তে বাধ্য করা হচ্ছে। এটা জোর করে বিবাহ বিচ্ছেদের মতো ঘটনা। এ বিষয়ে তিনি পিটিআই দলের সাবেক এক এমপির ('স্ব-ব্যাখ্যামূলক') ভিডিও শেয়ার করেছেন।

এক ভিডিওতে পিটিআইয়ের সাবেক এমপিএ সেলিম সারওয়ার জোরা অভিযোগ করেন, দেশটির আইন প্রয়োগকারী সংস্থাগুলো তাকে হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে দিচ্ছে না।

তিনি জানান, গুজরাটের আজিজ ভাট্টি শহীদ হাসপাতালের ডাক্তাররা তাকে সকালে অস্ত্রোপচারের পরামর্শ দিয়েছিলেন। কিন্তু পরে এক প্রশাসনিক চাপে তাকে হাসপাতাল থেকে বের হয়ে যেতে বলেন।

এরপর অন্য একটি ভিডিওতে দেখা যায় সাবেক এমপিএ সেলিম সারওয়ারকে জোর করে একটি অ্যাম্বুলেন্সে করে কোনো এক অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। (সম্ভবত তাকে পিটিআই দল ছাড়তে চাপ দেওয়ার জন্য কোনো প্রশাসনিক কার্যালয়ে নেওয়া হচ্ছিল) ওই সময় তিনি চিৎকার করে বলছিলেন, "ইমরান খান জিন্দাবাদ। ইমরান খান আমি আপনাকে ভালোবাসি।’


বিজ্ঞাপন


এ বিষয়ে পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বলেন, বর্তমান সরকার পিটিআই দলকে নির্মূলে সমস্ত রাষ্ট্রীয় শক্তি ব্যবহার করেছে। তাদের লক্ষ্য যেকানোভাবে পিটিআইকে নির্মূল করা। এটা নির্লজ্জ উপায়ে জোরপূর্বক বিবাহবিচ্ছেদ কার্যকর করার মতো ঘটনা। সরকারের এ ‘ফ্যাসিবাদী কৌশল’ পাকিস্তানের জনগণ ও রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠানের মধ্যেকার ব্যবধানকে আরও প্রশস্ত করবে।

সূত্র : ডন

এমইউ

ঢাকা মেইলের খবর পেতে গুগল নিউজ চ্যানেল ফলো করুন

সর্বশেষ
জনপ্রিয়

সব খবর