গণপ্রজাতন্ত্রী কঙ্গোর জঙ্গি বিমানে রুয়ান্ডার গুলি 

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ২৫ জানুয়ারি ২০২৩, ১০:১১ পিএম
গণপ্রজাতন্ত্রী কঙ্গোর জঙ্গি বিমানে রুয়ান্ডার গুলি 
সুখোই-২৫ যুদ্ধবিমান

গণপ্রজাতন্ত্রী কঙ্গো (ডিআরসি) থেকে আসা একটি জঙ্গি বিমানে গুলি চালিয়েছে রুয়ান্ডার সেনাবাহিনী। রুয়ান্ডা বলছে যে ওই যুদ্ধবিমানটি তাদের আকাশসীমা লঙ্ঘন করেছে। অপরদিকে কঙ্গো সরকার এ গুলিবর্ষণের ঘটনাকে যুদ্ধের উস্কানি বলে অভিহিত করেছে।

মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে রুয়ান্ডা সরকারের মুখপাত্র ইয়োল্যান্ডে মাকোলো বলেন, ‘গণপ্রজাতন্ত্রী কঙ্গো (ডিআরসি) থেকে একটি সুখোই-২৫ যুদ্ধবিমান তৃতীয়বারের মতো রুয়ান্ডার আকাশসীমা লঙ্ঘন করেছে। উত্তর কিভুর রাজধানী গোমার কাছে রুবাভু জেলার ওপর দিয়ে ওই জঙ্গি বিমানটি উড়ে গিয়েছিল।’

রুয়ান্ডার সরকার বলেছে, তারা ওই যুদ্ধবিমানের বিরুদ্ধে "প্রতিরক্ষামূলক ব্যবস্থা" নিয়েছে। তবে গণপ্রজাতন্ত্রী কঙ্গোর সরকার এমন দাবি অস্বীকার করেছে।

গত কয়েক মাসের সংঘাতের পর এ ঘটনা কঙ্গোর পূর্বাঞ্চলে বড় ধরনের সামরিক অচলাবস্থার সৃষ্টি করেছে। বর্তমান এ সংঘাতে দেশটির চার লাখ মানুষ বাড়ি-ঘর ছেড়ে পালিয়ে যেতে বাধ্য হয়েছে।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, গণপ্রজাতন্ত্রী কঙ্গো ও জাতিসংঘের বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, এম-২৩ বিদ্রোহী গোষ্ঠীকে সমর্থন দিয়ে যাচ্ছে রুয়ান্ডা। এ বিদ্রোহী গোষ্ঠীটি ওই অঞ্চলে ব্যাপক সংঘাতের জন্য দায়ী।

তবে রুয়ান্ডা এমন অভিযোগ অস্বীকার করেছে। তারা খনিজ সমৃদ্ধ অঞ্চলে সংঘাতের জন্য কঙ্গো সরকারকে দায়ী করেছে।

১৯৯০-এর দশকে রুয়ান্ডা তার প্রতিবেশী দেশ গণপ্রজাতন্ত্রী কঙ্গোতে দু’বার সৈন্য পাঠায়। এ সময় ৯টি দেশের মধ্যে একটি বিশাল সংঘাত সৃষ্টি হয়। তখন ওই অঞ্চলে লক্ষাধিক লোক মারা যায়।

সূত্র : বিবিসি, আল-জাজিরা

এমইউ