ফিলিস্তিনিদের গ্রাম ধ্বংস করেছে ইসরায়েল

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ২৫ জানুয়ারি ২০২৩, ০৫:৪৪ পিএম
ফিলিস্তিনিদের গ্রাম ধ্বংস করেছে ইসরায়েল
ফিলিস্তিনিদের বিরুদ্ধে বুলডোজার দিয়ে ধ্বংসযজ্ঞ চালিয়েছে ইসরায়েলি সেনাবাহিনী

দক্ষিণ নেগেভ অঞ্চলে ফিলিস্তিনিদের আল-আরাকিব বেদুইন গ্রাম ধ্বংস করেছে ইসরায়েলি বাহিনী। এর আগে তারা ওই গ্রামটিতে মোট ২১২ বার বুলডোজার দিয়ে ধ্বংসযজ্ঞ চালিয়েছে। প্রতিবার এমন ধ্বংসযজ্ঞের পরে ফিলিস্তিনিরা তাদের গ্রামে নতুন করে বাড়ি নির্মাণ করেছে।

বুধবার ইয়েনি শাফাক জানিয়েছে, ‘ঠাণ্ডা আবহাওয়া সত্ত্বেও গ্রামবাসীদের তাদের বসতবাড়ি ছেড়ে যেতে বাধ্য করেছে ইসরায়েলি পুলিশ। এরপর তারা বুলডোজার দিয়ে ফিলিস্তিনিদের অবকাঠামো ভেঙে ফেলেছে। মঙ্গলবার স্থানীয় বাসিন্দারা এসব তথ্য দিয়েছেন।’

আল-আরাকিবে ২২টি ফিলিস্তিনি পরিবার বাস করে। তাদের বাড়িগুলো কাঠ এবং প্লাস্টিকের তৈরি।

২০১০ সালে গ্রামটি প্রথমবারের মতো ধ্বংস করা হয়েছিল। তারপর থেকে প্রতিবার ইসরায়েলি ধ্বংসযজ্ঞের পরে পুনর্নির্মাণ করা হয়েছিল এ ফিলিস্তিনি গ্রাম। ইসরায়েলি কর্তৃপক্ষ দাবি করে যে ওই গ্রামের জায়গা তাদের "রাষ্ট্রীয় জমির" অধীনে পড়ে। অথচ, ঐতিহাসিকভাবেই ওই গ্রামে ফিলিস্তিনিরা বসবাস করে আসছে। 

তেল আবিব-ভিত্তিক এনজিও জোক্রোট একটি সাম্প্রতিক প্রতিবেদনে বলেছে, আল-আরাকিব গ্রামটি অটোমান আমলে নির্মিত হয়েছিল। এ গ্রামের জমিগুলো স্থানীয় ফিলিস্তিনিরাই কিনেছিলেন।

জোক্রোটের মতে, বর্তমানে নেগেভ এলাকায় কয়েক ডজন গ্রাম এবং বেদুইন সম্প্রদায় একই ধরনের জায়নবাদী হুমকির মুখোমুখি হয়েছে। এসব এলাকায় ইসরায়েলি কর্তৃপক্ষ ফিলিস্তিনিদের জমি দখল করতে চায় এবং এখানকার স্থানীয় বাসিন্দাদের বহিষ্কার করার পরিকল্পনা করছে।

সূত্র : ইয়েনি শাফাক

এমইউ