ফের ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়ল উ.কোরিয়া

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০১ অক্টোবর ২০২২, ০৯:৫৩ এএম
ফের ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়ল উ.কোরিয়া
উ.কোরিয়ার সামরিক কুচকাওয়াজে সাবমেরিন-চালিত ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র প্রদর্শন- ফাইল ফটো

মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিসের দক্ষিণ কোরিয়া সফর ঘিরে কয়েকদিনের ব্যবধানে চতুর্থবারের মতো ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়ল উত্তর কোরিয়া। পিয়ংইয়ং এলাকা থেকে দেশটির পূর্ব উপকূলের দিকে দুটি স্বল্প-পাল্লার ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করেছে বলে জানিয়েছে দক্ষিণ কোরিয়া ও জাপানের কর্মকর্তারা।

দক্ষিণ কোরিয়া এবং জাপানি কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, এক সপ্তাহের মধ্যে পিয়ংইয়ংয়ের চতুর্থ ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা করেছে। খবর আল জাজিরার

জাপানের এনএইচকে জাতীয় টেলিভিশন জানিয়েছে যে, শনিবার সকালে উত্তর কোরিয়া থেকে একাধিক ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করা হয়েছে। সেগুলো জাপানের এক্সক্লুসিভ অর্থনৈতিক অঞ্চলের বাইরে থাকলেও জাপান সাগরে অবতরণ করেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

শনিবার স্থানীয় সময় সকাল ৬:৪৭টায় (বাংলাদেশ সময় শনিবার ভোর ৩:৪৭টা) জারি করা এক বিবৃতিতে জাপানের উপকূলরক্ষীরা বলেছে, 'একটি ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র উত্তর কোরিয়া থেকে উৎক্ষেপণ করা হয়েছে বলে মনে হচ্ছে।'

প্রায় ১৫ মিনিট পরে জারি করা দ্বিতীয় বিবৃতিতে উপকূলরক্ষীরা বলেছে যে, আরেকটি ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণ করা হয়েছে।

জাপানের প্রধানমন্ত্রী ফুমিও কিশিদার অফিস টুইট করেছে যে, সর্বশেষ ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণ বিশ্লেষণ করা হচ্ছে এবং মানুষ, বিমান এবং জাহাজের নিরাপত্তার জন্য নির্দেশনা জারি করা হয়েছে।

মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিসের দক্ষিণ কোরিয়া সফরের আগে এবং পরে উত্তর কোরিয়া বুধবার এবং বৃহস্পতিবার সমুদ্রে স্বল্প-পাল্লার ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়েছে।

দক্ষিণ কোরিয়া, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং জাপানের নৌবাহিনী পাঁচ বছরের মধ্যে প্রথমবারের মতো শুক্রবার ত্রিপাক্ষিক সাবমেরিনবিরোধী মহড়া করার পরও ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়া অব্যহত রেখেছে উত্তর কোরিয়া।

জাপানের ভাইস প্রতিরক্ষা মন্ত্রী তোশিরো ইনো বলেছেন, উত্তর কোরিয়ার বারবার ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপের ফলে অবিরাম উসকানি বাড়ছে।

এক সপ্তাহে চারটি উৎক্ষেপণকে 'অভূতপূর্ব' বলে অভিহিত করে ইনো বলেছেন, 'উত্তর কোরিয়ার কর্মকাণ্ড শুধুমাত্র জাপানের জন্যই নয়, এই অঞ্চল এবং আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের জন্য শান্তি ও নিরাপত্তাকে হুমকির মুখে ফেলেছে এবং এটি একেবারেই অননুমোদিত।'

ইনো বলেন, ক্ষেপণাস্ত্রগুলো সর্বোচ্চ ৫০ কিলোমিটার (৩০ মাইল) উচ্চতায় উঠেছিল এবং জাপানের একচেটিয়া অর্থনৈতিক অঞ্চলের বাইরের অঞ্চলে জাপান সাগরে অবতরণের আগে ৪০০ কিলোমিটার (২৫০ মাইল) পর্যন্ত উড়েছিল।

উত্তর কোরিয়া এই বছর রেকর্ড সংখ্যক অস্ত্র পরীক্ষা করেছে এবং বিশ্লেষকরা তার পরীক্ষার বর্ধিত গতিকে ব্যালিস্টিক অস্ত্রের সক্ষমতা তৈরির প্রচেষ্টা হিসাবে দেখছেন।

একে