রাশিয়ার সাথে যুদ্ধবন্দী বিনিময় করতে চান জেলেনস্কি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ২২ মে ২০২২, ০৪:৫১ পিএম
রাশিয়ার সাথে যুদ্ধবন্দী বিনিময় করতে চান জেলেনস্কি
ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি

ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট বলেছেন যে তার দেশ রুশ যুদ্ধবন্দীদের বিনিময়ে মারিউপোলের আজভস্টাল স্টিল প্ল্যান্টে আত্মসমর্পণকারী ইউক্রেনীয় সেনাদের মুক্তি চায়। শনিবার তিনি এমন মন্তব্য করেন। এ সময় তিনি বলেন, ইউক্রেন এখন রাশিয়ার সাথে যুদ্ধবন্দী বিনিময় করতে প্রস্তুত।

ইউক্রেনের একটি টেলিভিশন চ্যানেলকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে দেশটির প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি বলেন, তার কাছে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো দেশটির সর্বাধিক সংখ্যক নাগরিক ও সেনার প্রাণ বাঁচানো।

এ সময় তিনি বলেন, ‘মারিউপোলের আজভস্টাল স্টিল প্ল্যান্টে আত্মসমর্পণকারী ইউক্রেনীয় সেনাদেরকে আমরা দেশে ফিরিয়ে আনব।’

ফেব্রুয়ারিতে শুরু হওয়া যুদ্ধে হাজার হাজার নাগরিক নিহত ও আহত হওয়ার পর এখন ইউক্রেনীয় প্রেসিডেন্ট বলেছেন, ‘যুদ্ধের অবসানের জন্য যথাসাধ্য চেষ্টা করবে ইউক্রেন।’ 

জেলেনস্কি আরো বলেন, একমাত্র কূটনীতিক পদক্ষেপের মাধ্যমে এ যুদ্ধের অবসান হবে। বর্তমানে যুদ্ধ বন্ধের জন্য চলমান আলোচনা স্থগিত হওয়ার পরেও তিনি এমন মন্তব্য করেছেন।

বর্তমানে চলমান এ যুদ্ধে ৬৩ লাখের বেশি উক্রেনীয় অন্য দেশে পালিয়ে গেছেন। অনেক শিশুও এ যুদ্ধে নিহত হয়েছে। এ বিষয়ে ইউক্রেনের প্রসিকিউটর জেনারেলের অফিস থেকে জানানো হয়েছে, ‘ইউক্রেনের বিভিন্ন অঞ্চলে রুশ হামলায় কমপক্ষে ২৩১ শিশু নিহত ও ৪২৭ জন আহত হয়েছে। দোনেৎস্ক, কিয়েভ ও খারকিভ অঞ্চলে চালানো হামলায় বেশিরভাগ শিশু নিহত হয়েছে।’

জাতিসংঘের হিসাব অনুযায়ী, ইউক্রেনে চলমান যুদ্ধে অন্তত ৩,৮৮৩ জন নিহত এবং ৪ হাজার ৩৫১ জন আহত হয়েছেন। কিন্তু, প্রকৃত হতাহতের সংখ্যা আরও বেশি হতে পারে।

জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক সংস্থা জানিয়েছে, ‘ইউক্রেনে ৭৭ লাখের বেশি মানুষ অভ্যন্তরীণভাবে বাস্তুচ্যুত হয়েছেন।‘

এদিকে ইউক্রেনীয় সেনাদের শেষ দলটি আত্মসমর্পণ করার পর অবরুদ্ধ মারিউপোল শহরে বিজয় ঘোষণা করেছে রাশিয়া।

শহরটির ইস্পাত কারখানায় লুকিয়ে থাকা ইউক্রেনের যোদ্ধারা কয়েক সপ্তাহ ধরে রাশিয়ার বাহিনীর সঙ্গে লড়াই করেছে। এ সপ্তাহের গোড়ার দিকে অবশ্য ইউক্রেনের কর্মকর্তারা যোদ্ধাদের জীবন রক্ষার জন্য আত্মসমর্পণের নির্দেশ দেন।

অ্যাজভস্ট্যাল ইস্পাত কারখানা থেকে ঠিক কতজন নিরাপদে বেরিয়ে আসতে পেরেছেন সে সংখ্যা পরিস্কার নয়। তবে রুশ প্রতিরক্ষামন্ত্রীর মতে, সাম্প্রতিক দিনগুলোতে ইউক্রেনের প্রায় ২,০০০ সৈন্য আত্মসমর্পণ করেছে। ইউক্রেনের আজভ রেজিমেন্টের কমান্ডার বলেছেন, যুদ্ধক্ষেত্র থেকে লাশ সরিয়ে নেওয়ার প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

এ বিষয়ে রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, ইউক্রেনীয় যোদ্ধারা চলে যাওয়ার পর ওই শহর ও ইস্পাত কারখানা এখন 'পুরোপুরি মুক্ত' করা হয়েছে।

ওই বিবৃতিতে আরো বলা হয়েছে, ‘সেখানকার যেসব ভূগর্ভস্থ এলাকায় তারা লুকিয়ে ছিল, তা রাশিয়ার সৈন্যদের পুরো নিয়ন্ত্রণে এসেছে।’

সূত্র : আনাদোলু এজেন্সি, বিবিসি 

এমইউ