মাঙ্কিপক্সের সংক্রমণ বেড়েছে ৭ গুণ, ডব্লিউএইচও'র সতর্কবার্তা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ২২ মে ২০২২, ১০:৪৪ এএম
মাঙ্কিপক্সের সংক্রমণ বেড়েছে ৭ গুণ, ডব্লিউএইচও'র সতর্কবার্তা
ছবি: সংগৃহীত

প্রতিদিনই বাড়ছে মাঙ্কিপক্সের সংক্রমণ, গত ১৩ মে থেকে এখনও পর্যন্ত ১২টি দেশে ৯২ জন রোগী শনাক্ত হয়েছে যারা মাঙ্কিপক্সে আক্রান্ত। এমতাবস্থায় সংক্রামক এ রোগ নিয়ে সতর্কবার্তা জারি করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বলছে, মাঙ্কিপক্স সংক্রমণের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে। কারণ সংস্থাটি এমন দেশগুলোতে নজরদারি বাড়াবে যেখানে সাধারণত এই রোগটি পাওয়া যায় না। খবর রয়টার্স।

এক বিবৃতিতে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা মাঙ্কিপক্স প্রসঙ্গে জানায়, ‘উপলব্ধ তথ্য থেকে বোঝা যায় যে মানুষ থেকে মানুষে সংক্রমণ ঘটছে। ঘনিষ্ঠ শারীরিক সংস্পর্শে থাকা ব্যক্তিদের মধ্যে যারা লক্ষণযুক্ত তারা আক্রান্ত হচ্ছে।’

ডব্লিউএইচও আরও জানায়, ‘পরিস্থিতি দ্রুত পাল্টাচ্ছে এবং ডব্লিউএইচও আশা করে যে নন-এনডেমিক দেশগুলোতে নজরদারি বাড়ানো হলে মাঙ্কিপক্সের আরও কেস শনাক্ত হবে। যে সকল ব্যক্তি সবচেয়ে বেশি মাঙ্কিপক্সে আক্রান্ত হতে পারেন, তাঁদের সঠিক তথ্য দিয়ে জানানোর উপর তাৎক্ষণিক ভাবে নজর দিতে হবে। এই সংক্রামণ যাতে আরও না ছড়িয়ে পড়ে, তা বন্ধ করতে হবে।’

সংক্রামক রোগ মাঙ্কিপক্সের প্রাদুর্ভাব মূলত পশ্চিম ও মধ্য আফ্রিকা অঞ্চলে সবচেয়ে বেশি। রোগটির নাম মাঙ্কিপক্স কারণ, এটি প্রথম বানরের মধ্যে সনাক্ত করা গিয়েছিল।

প্রাথমিক ভাবে দেখা গিয়েছে সমকামীদের যৌন সংযমে এই রোগের সংক্রমণের হার বেশি। তবে মানুষের থেকে মানুষের শরীরে এই সংক্রমণ খুব সহজে ছড়িয়ে পড়ে না।

সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ এবং ডব্লিউএইচও কর্মকর্তা ডেভিড হেম্যান বলেন, ‘‘মাঙ্কিপক্সের প্রাদুর্ভাব কোভিড-১৯ মহামারীর প্রথম দিনগুলোর সাথে সাদৃশ্যপূর্ণ নয় কারণ এটি এত সহজে সংক্রমণ হয় না। তবে যারা সন্দেহ করেন যে তারা সংস্পর্শে এসেছেন তাদের অন্যদের সাথে ঘনিষ্ঠ যোগাযোগ এড়ানো উচিত।’’

টিএম