শনিবার, ২০ জুলাই, ২০২৪, ঢাকা

ব্যক্তিগত গাড়িতে ভিআইপি স্টিকার, শাস্তি পেলেন শিক্ষানবিশ আমলা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ১০ জুলাই ২০২৪, ০৯:০৪ পিএম

শেয়ার করুন:

ব্যক্তিগত গাড়িতে ভিআইপি স্টিকার, শাস্তি পেলেন শিক্ষানবিশ আমলা

খাতা-কলমে এখনও তিনি শিক্ষানবিশ আমলা। যদিও চলাফেরায় তিনি প্রভাবশালীদেরও টেক্কা দেন। মাত্র এক বছর আগে ভারতের মহারাষ্ট্র সরকারের অধীনে কাজে যোগ দিয়েছেন। কিন্তু এরই মধ্যে তার গাড়িতে লেগেছে ভিআইপি স্টিকার। গাড়ির ছাদে লাগানো হয়েছে মন্ত্রীদের মতো লাল-নীল বাতি।

এমনকি রাজ্য সরকারের সরকারি নম্বর প্লেটও লাগিয়েছেন হয়েছে গাড়িতে, যা শুধুমাত্র পদস্থ আমলারাই ব্যবহার করতে পারেন।


বিজ্ঞাপন


কিন্তু শেষ পর্যন্ত ধরা খেয়েছেন পূজা খেড়কর নামে পুণের ওই শিক্ষানবিশ আমলা। বুধবার তাকে ‘শাস্তি’ দিয়েছে মহারাষ্ট্র রাজ্য প্রশাসন। তার বিরুদ্ধে ক্ষমতার অপব্যবহারের অভিযোগ রয়েছে। তিনি ২০২৩ সালের ব্যাচের আইএএস অফিসার। খবর এনডিটিভির।

মহারাষ্ট্রের মুখ্যসচিবের কাছে এ বিষয়ে লিখিত অভিযোগ করেছেন শিক্ষানবিশ আমলা পূজার ঊর্ধ্বতন অফিসার পুণের জেলা প্রশাসক সুভাষ দিওয়াসে। ওই অভিযোগের ভিত্তিতেই পূজার বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।

পূজার বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি জেলা প্রশাসকের কাছে এমন কিছু সুবিধা দাবি করেছিলেন, যা একজন শিক্ষানবিশ আমলাকে দেওয়া হয় না। যেমন, ভিআইপি নম্বরপ্লেট লাগানো সরকারি গাড়ি, সরকারি বাংলো, অফিশিয়াল চেম্বার, কাজে সাহায্য করার জন্য কিছু অধস্তন কর্মী। এমনকি একজন কনস্টেবলও চেয়েছিলেন পূজা।

India_Officer--02


বিজ্ঞাপন


প্রশাসনিক নিয়ম অনুযায়ী একজন শিক্ষানবিশ আমলা পদোন্নতির পরে ‘গেজেটেড অফিসার’ হওয়ার পরই এসব সুবিধা পেয়ে থাকেন।

কিন্তু পূজা কোনো কিছুর পরোয়া না করেই এসব দাবি জানান এবং না পেয়ে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসকের চেম্বার দখল করে নিজের নামফলক লাগিয়ে দেন। নিজের নামে লেটারহেড প্যাড, ভিজ়িটিং কার্ড, পেপারওয়েট, সিলমোহরের স্ট্যাম্প এবং ইন্টারকমেরও দাবি করেন পূজা।

এসব সুবিধা পূজাকে দেওয়ার জন্য তার ‘প্রাক্তন আমলা’ বাবা পুণের জেলা প্রশাসককে ফোন করে চাপ দেন বলেও অভিযোগ।

পরে পূজাকে বদলি করা হয় পুণে থেকে দূরে ওয়াসিমে, কম গুরুত্বপূর্ণ একটি পদে। তবে প্রশ্ন উঠেছে তার চাকরি পাওয়া নিয়েও।

ঢাকা মেইলের খবর পেতে গুগল নিউজ চ্যানেল ফলো করুন

সর্বশেষ
জনপ্রিয়

সব খবর