মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ঢাকা

ডেঙ্গুতে রোগী বেশি ঢাকার বাইরে

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১৯ মার্চ ২০২৩, ০৬:৪৭ পিএম

শেয়ার করুন:

ডেঙ্গুতে রোগী বেশি ঢাকার বাইরে

প্রতিবছর বর্ষা মৌসুমে ডেঙ্গুর প্রাদুর্ভাব দেখা গেলেও এবার এর ভিন্নতা লক্ষ্য করা যাচ্ছে। চলতি বছরের জানুয়ারি মাস থেকেই আগ্রাসী ভূমিকায় এডিস মশাবাহিত রোগটি। একইসঙ্গে ঢাকা মহানগর কেন্দ্রীক রোগটির প্রাদুর্ভাব ঢাকার বাইরে সর্বাধিক লক্ষ্য করা যাচ্ছে। এখন পর্যন্ত সরাদেশে  ৮০৭ জন ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। এর মধ্যে রাজধানী ঢাকায় ৩৯৬ জন এবং ৪১১ জন বাইরে চিকিৎসাধীন ছিলেন। 

রোববার (১৯ মার্চ) স্বাস্থ্য অধিদফতরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুম থেকে পাঠানো ডেঙ্গুবিষয়ক সংবাদ বিজ্ঞপ্তি বিশ্লেষণে এমন চিত্র দেখা গেছে। 


বিজ্ঞাপন


বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ৭ জন ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। এর মধ্যে তিনজন ঢাকায় এবং বাকিরা ঢাকার বাইরে চিকিৎসাধীন আছে। তবে এ সময় নতুন করে কোনো মৃত্যুর ঘটনা ঘটেনি। এ নিয়ে চলতি বছরে মৃতের সংখ্যা ৯ জনে স্থির আছে। 

নতুনদের নিয়ে এখন পর্যন্ত মোট ২২ জন হাসপাতালে ভর্তি আছে। এর মধ্যে ১১ জন ঢাকা মহানগর এবং বাকিরা দেশের অন্যান্য হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। আর মোট ভর্তি রোগীদের ৩৯৬ জন ঢাকায় এবং ৪১১ জন বাইরে চিকিৎসা নিয়েছেন।

এদিকে চলতি বছরের ১ জানুয়ারি থেকে ১৯ মার্চ পর্যন্ত সারাদেশে মোট ৮০৭ জন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। সুস্থ হয়ে হাসপাতাল ছেড়েছেন ৭৭৬ জন। এর মধ্যে সর্বোচ্চ ৫৬৬ জন জানুয়ারি মাসে হাসপাতালে এসেছেন। এছাড়া ফেব্রুয়ারিতে ১৬৬ জন এবং মার্চ মাসের প্রথম ১৯ দিনে ৭৫ জন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। এর মধ্যে জানুয়ারিতে ৬ জন এবং ৩ জন ফেব্রুয়ারিতে মারা গেছেন। তবে চলতি মাসে কোনো মৃত্যুর ঘটনা ঘটেনি।

প্রতিবছর বর্ষাকালে রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন শহরে ডেঙ্গুর প্রকোপ দেখা দেয়। ২০১৯ সালে দেশব্যাপী ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়েছিলেন এক লাখ এক হাজার ৩৫৪ জন। ওই সময়ে চিকিৎসক-স্বাস্থ্যকর্মীসহ প্রায় ৩০০ জনের মৃত্যু হয়েছিল।


বিজ্ঞাপন


২০২০ সালে করোনা মহামারিকালে ডেঙ্গুর সংক্রমণ তেমন একটা দেখা না গেলেও ২০২১ সালে সারাদেশে ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হন ২৮ হাজার ৪২৯ জন। একই বছর ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে ১০৫ জনের মৃত্যু হয়েছিল। সর্বশেষ ২০২২ সালে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন মোট ৬২ হাজার ৩৮২ জন। আর মৃত্যুবরণ করেছেন ২৮১ জন।

এমএইচ/এএস

ঢাকা মেইলের খবর পেতে গুগল নিউজ চ্যানেল ফলো করুন

সর্বশেষ
জনপ্রিয়

সব খবর