ডেঙ্গুতে মৃত্যু বেড়ে ৪৮, হাসপাতালে আরও ৪৩৭

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ২২ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৫:০৫ পিএম
ডেঙ্গুতে মৃত্যু বেড়ে ৪৮, হাসপাতালে আরও ৪৩৭
ছবি: সংগৃহীত

দেশে আশঙ্কাজনক হারে বাড়ছে ডেঙ্গুর সংক্রমণ। গত ২৪ ঘণ্টায়ও মশাবাহিত এই রোগ নিয়ে নতুন করে আরও ৪৩৭ জন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। এ নিয়ে বর্তমানে ১ হাজার ৫২৯ জন ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। এই সময়ে নতুন করে আরও দুই ডেঙ্গু রোগীর প্রাণহানি হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২২ সেপ্টেম্বর) বিকেলে স্বাস্থ্য অধিদফতরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুমের ইনচার্জ ডা. মো. জাহিদুল ইসলাম স্বাক্ষরিত ডেঙ্গুবিষয়ক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়, বুধবার (২১ সেপ্টেম্বর) সকাল ৮টা থেকে বৃহস্পতিবার একই সময়ের মধ্যে সারাদেশে নতুন করে আরও ৪৩৭ জন ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। নতুন ভর্তি হওয়া রোগীর মধ্যে ৩০৬ জন ঢাকায় এবং ১৩১ জন ঢাকার বাইরে চিকিৎসাধীন।

বর্তমানে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে দেশের বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে সর্বমোট ১ হাজার ৫২৯ জন ভর্তি রয়েছেন। তাদের মধ্যে ঢাকার ৪৭টি ডেঙ্গু ডেডিকেটেড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ১ হাজার ১৮৩ জন। বাকি ৩৪৬ জন ঢাকার বাইরে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের তথ্যমতে— চলতি বছরের প্রথম দিন (১ জানুয়ারি) থেকে ২২ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন মোট ১২ হাজার ৮৭৫ জন। এর মধ্যে সুস্থ হয়ে হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেয়েছেন ১১ হাজার ২৯৮ জন। এছাড়া চলতি বছরে এডিস মশাবাহিত রোগ ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে এখন পর্যন্ত ৪৮ জন মারা গেছেন।

প্রতিবছর বর্ষাকালে রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন শহরে ডেঙ্গুর প্রকোপ দেখা দেয়। ২০১৯ সালে দেশব্যাপী ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়েছিলেন ১ লাখ ১ হাজার ৩৫৪ জন। ওই সময়ে চিকিৎসক-স্বাস্থ্যকর্মীসহ প্রায় ৩০০ জনের মৃত্যু হয়েছিল।

২০২০ সালে করোনা মহামারিকালে ডেঙ্গুর সংক্রমণ তেমন একটা দেখা না গেলেও ২০২১ সালে সারাদেশে ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হন ২৮ হাজার ৪২৯ জন। একই বছর ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে ১০৫ জনের মৃত্যু হয়েছিল।

চলতি বছরে ডেঙ্গুর হটস্পট হয়ে উঠেছে কক্সবাজার। রোহিঙ্গারা ব্যাপকভাবে এতে আক্রান্ত হচ্ছেন। গত এক বছরে সংখ্যায় তা ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে। ইতোমধ্যেই পর্যটন নগরী কক্সবাজারে রোহিঙ্গা ও স্থানীয় মিলে ১ বছরে ১১ হাজারের বেশি মানুষ ডেঙ্গু রোগে আক্রান্ত হয়েছে। সেই সঙ্গে চলতি বছরে এখন পর্যন্ত মারা গেছেন ২৩ জন।

অন্যদিকে রাজধানীতে ডেঙ্গুর সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে কঠোর অবস্থানে রয়েছে দুই সিটি করপোরেশন। এরই মধ্যে ডেঙ্গু জ্বরের বাহক এডিস মশা নির্মূলে সপ্তাহব্যাপী বিশেষ অভিযান চালানোর ঘোষণাও দিয়েছে ডিএনসিসি। এর পাশাপাশি চলছে অভিযান। যেখানেই এডিস মশার লার্ভা মিলছে সেখানেই চলছে জরিমানা। সেই সঙ্গে মাইকিং ও লিফলেট বিতরণের মাধ্যমে চলছে সচেতনতামূলক কার্যক্রম।

এমএইচ/এইউ