গায়ক নন, যেন সুপারম্যান

বিনোদন ডেস্ক
প্রকাশিত: ২৩ জুন ২০২২, ০২:৪৯ পিএম
গায়ক নন, যেন সুপারম্যান

বন্যাদুর্গতদের সহায়তায় নিবেদিতপ্রাণ তাশরীফ খানের কার্যক্রমের সঙ্গে এরইমধ্যে সবাই পরিচিত। শুরু থেকেই বানভাসি অসহায় মানুষের পাশে রয়েছেন তিনি। নিজের ফেসবুক থেকে লাইভে এসে তহবিল সংগ্রহ করছেন। দেশ-বিদেশে অবস্থানরত বাংলাদেশীরাও তার ডাকে সাড়া দিচ্ছেন। ফলস্বরূপ তৃতীয় ধফায় তাশরীফের তহবিলে জমা পড়েছে এক কোটি ২০ লাখ টাকা।

বন্যাকবলিতদের পাশে দাঁড়ানোর উদ্দেশ্যে তাশরীফ প্রথম যেবার লাইভ করেন সেবার তার তহবিলে জমা হয়েছিল ১৬ লাখ টাকা। সেই টাকা নিয়ে তিনি ঝাপিয়ে পড়েছিলেন অসহায়দের সহায়তায়। এরপর ১৬ জুন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এসে আবারও এই গায়ক জানান, তহবিলে টান পড়েছে। মজুদকৃত ত্রাণ যা আছে তা দিয়ে দিন দুয়েক যেতে পারে। এরপরই এক অভূতপূর্ব সাড়া পান তিনি।

বুধবার (২২ জুন) পর্যন্ত তার তহবিলে এসে জমা হয় এক কোটি ২০ লাখ টাকা। বৃষ্টি-বন্যা উপেক্ষা করে তহবিলে জমা হওয়া এই অর্থ দিয়েই তাশরীফের মানুষের দুয়ারে ছুটে যাচ্ছেন নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য সামগ্রী নিয়ে।

এ প্রসঙ্গে তাশরীফ বলেন, ‘প্রথমে এসেছিলাম এক লাখ টাকা নিয়ে। কিন্তু বন্যা পরিস্থিতির ভয়াবহতা দেখে একটি ছবি পোস্ট করে বলি, এক-দুই লাখ টাকা পর্যাপ্ত মনে হচ্ছে না। কিন্তু আমি সিলেট থেকে কোনোভাবেই পালিয়ে যেতে চাই না। দয়া করে আপনারা পাশে দাঁড়ান। আমার এই পোস্টের ১২-১৩ ঘণ্টায় ১৪ লাখ টাকা আসে তহবিলে। এরপর আমাদের নাম্বারগুলো লেনদেনের সর্বোচ্চ সীমা অতিক্রম করে।’

তিনি আরও বলেন, ‘পরে গত পরশু আমরা তৃতীয়বারের মতো অর্থ সংগ্রহে নামি। একদিনের মধ্যে তহবিলে এক কোটি ১০ লাখের বেশি টাকা জমা হয়। আমি অবাক হয়ে যাই। মানুষের এই ভালোবাসা পেয়ে আবেগী হয়ে পড়ি। ইচ্ছা করছে, অর্থসহায়তা দেওয়া প্রতিটি মানুষের পা ছুঁয়ে সালাম করি। তারা আমাদের মতো তরুণদের অনেক বড় একটা স্বপ্ন দেখাল।’

সিলেট-সুনামগঞ্জের বন্যা দুর্গতদের সহায়তায় এরই মধ্যে এগিয়ে এসেছেন অনেকেই। ব্যক্তি উদ্যোগে কিংবা সম্মিলিতভাবে সাহায্যের হাত বাড়িয়েছেন মানবিক হৃদয়ের অধিকারীরা। ধীরে ধীরে এই তালিকা দীর্ঘ হয়েছে। তবে শুরু থকেই বানভাসি এই অসহায় মানুষের পাশে রয়েছেন  তাশরীফ।

আরআর/আরএসও