সোমবার, ২২ এপ্রিল, ২০২৪, ঢাকা

জার্নিটা আরামদায়ক ছিল না: আরিয়ান

রাফিউজ্জামান রাফি
প্রকাশিত: ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ০৩:৫৩ পিএম

শেয়ার করুন:

জার্নিটা আরামদায়ক ছিল না: আরিয়ান

 

নির্মাতা মিজানুর রহমান আরিয়ানের সঙ্গে সফলতার বেশ সখ্যতা। ‘বড় ছেলে’, ‘নেটওয়ার্কের বাইরে’, ‘উনিশ২০’ তার প্রমাণ। সম্প্রতি মুক্তি পেয়েছে আরিয়ানের ওয়েব সিনেমা ‘পুনর্মিলনে’। প্রশংসিত হয়েছে পরিবার ও সম্পর্কের গল্পে নির্মিত সিনেমাটি। এতে অভিনয় করেছেন সিয়াম আহমেদ, তাসনিয়া ফারিণসহ অনেকে। সিনেমাটির সূত্র ধরে ঢাকা মেইলের কাছে মনের আগল খুলেছিলেন আরিয়ান। 

 

আপনার নির্মিত ‘পুনর্মিলনে’ বেশ সাড়া ফেলেছে। এরকম প্রত্যাশা ছিল?

আমি প্রতিটি কনটেন্ট বানাই যেন দর্শক পছন্দ করেন। নির্মাণের আগে থেকে নির্মাণ পর্যন্ত মাথায় থাকে কনটেন্ট যেন প্রশংসিত হয়। আমার ক্যারিয়ারের জার্নি যদি দেখেন খেয়াল করবেন আমার নির্মিত বেশিরভাগ কনটেন্টই জনপ্রিয়তা পেয়েছে, প্রশংসিত হয়েছে। ওই জায়গা থেকে প্রত্যাশা হয়ে গেছে, আমার কনটেন্ট দর্শক পছন্দ করবেন। ‘পুনর্মিলনে’র ক্ষেত্রেও তেমন ছিল।

an


বিজ্ঞাপন


নেটিজেনদের একটি অংশ মনে করছে ‘পুনর্মিলনে’ সিনেমাটি পরকীয়ায় উৎসাহিত করছে। এক্ষেত্রে আপনি কী বলবেন?

আমি যেহেতু দর্শকের জন্য কাজ করি সেহেতু তাদের মন্তব্য খেয়াল করি। তারা কী বলতে চাচ্ছেন, কোন জায়গা থেকে বলতে চাচ্ছেন— বোঝার চেষ্টা করি। ভালো মন্তব্য অনুপ্রাণিত করে। আর নেতিবাচক মন্তব্য গঠনমূলক হলে নেওয়ার চেষ্টা করি। কারণ গঠনমূলক সমালোচনা পরের কনটেন্টে আমাকে সাহায্য করে। ‘পুনর্মিলনে’ অন্তু ও তৃণা কী করতে পারত? লুকিয়ে প্রেম করতে পারত, ধরা পড়তে পারত। দুটি সম্পর্কই চালিয়ে যেতে পারত। তারা সেটা করেনি। একটা সুস্থ প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে গেছে। আর আমরা এখানে দেখাতে চেয়েছি, একটি পরিবারে এত বড় ঘটনা ঘটেছে। এই ইস্যুকে পাশ কাটিয়েও পরিবারের পুনর্মিলন ঘটেছে। এখানে বার্তা দিতে চেয়েছি— ছোট ছোট কারণে আপনি কাজিনদের সঙ্গে মিশছেন না, পরিবার থেকে দূরে আছেন। এগুলো ভুলে যান, ক্ষমা করে দিন। এত বড় ঘটনার পরও যদি একটি পরিবার এক হতে পারে তাহলে আপনি আপনার আশেপাশের মানুষজনের সঙ্গে ঘটে যাওয়া তুচ্ছ কারণে কেন বিচ্ছিন্ন হবেন? আমরা মূলত এটাই দেখাতে চেয়েছি।

nor

চারদিকে থ্রিলার, সাইকো থ্রিলার গল্পের ছড়াছড়ি। সেখানে আপনাকে দেখা যায় পরিবার, সম্পর্কের গল্প নিয়ে কাজ করতে। ঠিক কী কারণে?

আপনার প্রশ্নের ভেতরই এর উত্তর আছে। ওগুলো অনেক হচ্ছে বলে আমার মনে হয়েছে এ ধরনের কনটেন্ট হওয়া উচিত। তা ছাড়া সম্পর্কের গল্প, পরিবারের গল্পের কনটেন্ট বানাতে আমার ভালো লাগে।

‘বড় ছেলে’ থেকে ‘পুনর্মিলনে’ পর্যন্ত জার্নিটা কেমন ছিল?

সবার জীবনেই স্ট্রাগল আছে। কারও জীবনই সহজ না। মন খারাপ করা, ভেঙে পড়া, পরিশ্রম করা আবার উঠে দাঁড়ানো অন্য সবার জীবনে যেমন একজন ফিল্মমেকেরের জীবনেও তেমন। তবে আমাদের ক্ষেত্রে কষ্টটা বেশি বলে মনে হয়। আমার জার্নিটাও আরামদায়ক ছিল না। কষ্ট ছিল, বেদনা ছিল। আমাদের ফিল্মমেকারদের কাছে প্রতিটি প্রজেক্টেই নতুন জার্নি, নতুন কষ্ট, নতুন স্ট্রাগল থাকে। দিন শেষে যখন নতুন একটি গল্প পছন্দ হয় তখন ওই কষ্টই ভালো লাগায় পরিণত হয়।

arifin

প্রত্যেক নির্মাতার লক্ষ্য থাকে বড়পর্দা। আপনাকে সেখানে কবে পাওয়া যাবে?

আশা করছি আগামী বছর বড়পর্দায় দেখা হবে।

শাকিব খানকে নিয়ে সিনেমা বানানোর খবর এসেছিল। এখন কোন পর্যায়ে ছবিটির কাজ?

ওটা হবে। আমরা এখনও পর্যন্ত প্রাথমিক পর্যায়ে আছি। কবে আসবে, কবে করব— ওই পর্যায়ে যাইনি। গল্প নিয়ে কাজ চলছে।

প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি না পেলে আমাদের দর্শকরা সিনেমাকে সিনেমার মর্যাদা দিতে চান না। যেমন ওটিটি মাধ্যমে মুক্তি পেলে ওয়েব সিনেমা বলে থাকেন। বিষয়টি কতটা যৌক্তিক বলে মনে করেন?

বিশ্বব্যাপী সবাই কিন্তু সিনেমা বলে। ওয়েব ফিল্ম বলে না। তাছাড়া নেটফ্লিক্স দেখবেন সেখানেও সিনেমা বলে। আমাদের এখানেও ওটিটিতে যখন নাম যায় আমার নাম লেখা ওঠে অরিজিনাল ফিল্ম বাই আরিয়ান। অন্যদের ক্ষেত্রেও তাই। আমার মনে হয় সিনেমা সিনেমাই। যখনই সেটা ফিল্ম ট্যাগ পাচ্ছে সেটা ফিল্মই। কোথায় মুক্তি পাচ্ছে সেটা কোনো বিষয় না।

net

অনেকেই মনে করেন ওটিটি মানেই অশ্লীলতা। আপনার কী মত?

ওটিটি মানেই অশ্লীলতা— আমি এটা মানি না। ওটিটিতে শুধু অশ্লীল কনটেন্ট হচ্ছে না। অনেক ভালো ভালো কনটেন্টও হচ্ছে। কিছু কনটেন্টে হয়তো গল্পের প্রয়োজনে এমন কিছু উঠে আসছে যেটাকে অশ্লীল বলা হচ্ছে। কিন্তু আমার কাছে মনে হয় সিনেমায় আপনার আশেপাশে কী ঘটছে দেখনো খুব জরুরি। নির্মাতা যেভাবে দেখাতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন সেভাবেই দেখান। কিছু যদি দেখানো হয় সেক্ষেত্রে গল্পের প্রয়োজনে দরকার ছিল কি না এই লাইনটা সবচেয়ে জরুরি। গল্পের প্রয়োজনে যদি দেখাতে হয় সেটা দেখানোর অধিকার একজন ফিল্মমেকারের আছে।

‘তারা কীসে আটকায়’, ‘ফ্লাইট-২২৭’ নামের দুটি কাজের ঘোষণা দিয়েছেন। কোন পর্যায়ে আছে এ দুটির কাজ?

দুটি কাজই স্ক্রিপ্টিং পর্যায়ে আছে। গল্প নিয়ে কাজ চলছে। এখনও ঘোষণা দেওয়ার মতো কিছু আসেনি। প্রাথমিক পর্যায়ে আছে।

আরআর 

ঢাকা মেইলের খবর পেতে গুগল নিউজ চ্যানেল ফলো করুন

সর্বশেষ
জনপ্রিয়

সব খবর