নোয়াখালীতে ছাত্রী হত্যা: শাস্তির দাবিতে চবিতে মানববন্ধন

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
চবি
প্রকাশিত: ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৪:৪৮ পিএম
নোয়াখালীতে ছাত্রী হত্যা: শাস্তির দাবিতে চবিতে মানববন্ধন
ছবি : ঢাকা মেইল

নোয়াখালীর লক্ষ্মীনারায়ণপুরের অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী তাসমিয়া হোসেন অদিতাকে (১৪) ধর্ষণ ও গলা কেটে হত্যার ঘটনায় অপরাধীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন করেছে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) অধ্যয়নরত নোয়াখালীর শিক্ষার্থীরা। 

রোববার (২৫ আগস্ট) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ মিনারের সামনে এ মানববন্ধন করে তারা। 

নৃবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী নজরুল ইসলাম রায়হানের সঞ্চালনায় মানববন্ধনে বক্তব্য দেন ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের শিক্ষার্থী রাকিব হোসেন, পরিসংখ্যান বিভাগের শিক্ষার্থী আনসারুল হক মাহমুদ, লোকপ্রশাসন বিভাগের শিক্ষার্থী মোহাম্মদ আজহার, ফাহমিদা আক্তার ও মোছা. মাজেদাসহ আরও অনেকেই। 

রাকিব হোসেন তার বক্তব্যে বলেন, নোয়াখালীর সদরে ঘটে যাওয়া নৃশংস ঘটনার সাক্ষী আমরা সবাই। আটক রনি আদালতে জবানবন্দিতে ধর্ষণ চেষ্টার পর বালিশ চাপা ও গলা কেটে হত্যার বিষয়টি স্বীকারও করেছে। আমরা চাই তাকে সর্বোচ্চ শাস্তির আওতায় আনা হোক। পাশাপাশি এ ঘটনার সঙ্গে আর কোনও চক্র জড়িত আছে কিনা সেটাও খতিয়ে দেখা হোক। 

ফাহমিদা আক্তার বলেন, ২১ শতকে এসেও আমরা নারীরা এখনো এমন অনিরাপদ, এটা কল্পনা করা যায়? আমরা নারীদের অধিকারের কথা বলছি, অথচ নারীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে পারছি না। এরচেয়ে দুঃখজনক আর কিছুই হতে পারে না। আমরা এ ঘটনার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই। 

আনসারুল হক মাহমুদ বলেন, এটা কোনও সাধারণ ঘটনা নয়। অথচ অষ্টম শ্রেণিতে পড়া একজন শিক্ষার্থী যখন তার শিক্ষকের হাতেই এমন ন্যাক্কারজনক ঘটনার শিকার হন, তখন আমাদের মা-বোনদের নিরাপত্তা আমরা কার কাছে আশা করবো? সে একজন খুনির পাশাপাশি শিক্ষকজাতির কলঙ্ক। আমরা তার ফাঁসি চাই। 

প্রসঙ্গত, গত বৃহস্পতিবার (২২ সেপ্টেম্বর) রাতে নোয়াখালী শহরের লক্ষ্মীনারায়ণপুর এলাকায় নিজ বাসা থেকে স্কুলছাত্রী তাসমিয়া হোসেন অদিতার (১৪) গলাকাটা লাশ উদ্ধার করে সুধারাম থানার পুলিশ। ওই ছাত্রী নোয়াখালীর সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির শিক্ষার্থী ছিলেন। পরিবারের অভিযোগ, ওই ছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়েছে এবং এর সত্যতা স্বীকার করে নিয়েছে আটককৃত গৃহশিক্ষক আবদুর রহিম ওরফে রনি।

প্রতিনিধি/এইচই