ঢাবি ছাত্র পরিচয়ে প্রেম, যুবককে মারধর

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
ঢাবি
প্রকাশিত: ২২ মে ২০২২, ১১:৩১ এএম
ঢাবি ছাত্র পরিচয়ে প্রেম, যুবককে মারধর

রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে এক যুবককে মারধর করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েকজন শিক্ষার্থী। তার নাম ফরহাদ হোসেন। তিনি জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী হলেও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্র পরিচয় দিতেন।

গতকাল শনিবার রাত আটটার দিকে এই ঘটনা ঘটে।

ঢাবির কয়েকজন শিক্ষার্থী জানান, রাতে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে এক মেয়ের সঙ্গে ফরহাদের বাকবিতণ্ডা হয়। এ সময় সেখানে উপস্থিত হয় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েকজন শিক্ষার্থী। তর্কাতর্কির বিষয়ে জানতে চাইলে মেয়েটি বলেন ফরহাদের সঙ্গে তার আট মাসের প্রেমের সম্পর্ক থাকলেও এখন ভালোবাসে না বলছে। পরিচয় জানতে চাইলে ছেলেটি নিজেকে ঢাবি শিক্ষার্থী পরিচয় দেয়। কার্ড দেখতে চাইলে ঢাবির নকল আইডি কার্ড দেখায়। কার্ডটি নকল দাবি করে ঢাবি শিক্ষার্থীরা তাকে পেটালে ছেলেটি জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র বলে তাদের জানায়। পরে আবার পিটুনি দিয়ে কয়েকজন তাকে শাহবাগ থানায় নিয়ে যায়। কিন্তু মেয়েটি কোনো আইনি পদক্ষেপ নিতে রাজি হননি৷

ওই তরুণী বলেন, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র বলে আট মাস ধরে আমার সঙ্গে প্রেম করে আসছিল ফরহাদ। সে কোথায় পড়ে তাতে আমার সমস্যা ছিল না। তবে আট মাস পরে এসে বলছে এখন সে আমায় ভালোবাসে না। আমি ওকে সত্যিই ভালোবাসি। তাই আমি ওর বিরুদ্ধে কোনো আইনগত পদক্ষেপ নিতে চাই না।

ঢাবির ভুয়া আইডি কার্ডের বানানোর সত্যতা স্বীকার করে ফরহাদ বলেন, সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে নেশাখোররা নাকি বাইরের মানুষের ওপর হামলা করে। তাই তাদের কাছ হতে বাঁচতে আমি এই কার্ড বানিয়েছি৷

জানতে চাইলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. এ কে এম গোলাম রাব্বানী ঘটনাস্থলে থাকা শাহবাগ থানার এসআই পলাশের সঙ্গে কথা বলেন এবং ছেলেটিকে পুলিশি হেফাজতে নিতে বলেন। এছাড়া ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভুয়া আইডি কার্ড বানানোর জন্য ফরহাদের বিরুদ্ধে প্রতারণার মামলা করবেন বলে জানান প্রক্টর।

শাহবাগ থানার উপপরিদর্শক (এসআই) পলাশ জানান, ঢাবি ভুয়া ছাত্র জানার পর কয়েকজন শিক্ষার্থী ফরহাদকে মারধর করে থানায় নিয়ে আসে। বিষয়টি খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

প্রতিনিধি/এমআর