পোশাক খাতের উন্নয়নে একে অন্যের পরিপূরক হতে পারে বাংলাদেশ-তাইওয়ান

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০২ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ০৮:৫০ পিএম
পোশাক খাতের উন্নয়নে একে অন্যের পরিপূরক হতে পারে বাংলাদেশ-তাইওয়ান

বাংলাদেশ ও তাইওয়ানের পোশাক এবং বস্ত্র শিল্পের উন্নয়নে দেশদুটি একে অপরের পরিপূরক হওয়ার বিশাল সম্ভাবনা রয়েছে। এ ক্ষেত্রে বাংলাদেশ ও তাইওয়ানের ব্যবসায়িক সম্প্রদায় এবং বাণিজ্য সংগঠনগুলোকে সম্পৃক্ত করে সহযোগিতা প্রদানের মাধ্যমে দ্বি-পাক্ষিক বাণিজ্য সুবিধা অর্জনের সুযোগগুলো উন্মোচন করা যেতে পারে বলে অভিমত ব্যক্ত করেছে তাইওয়ান টেক্সটাইল ফেডারেশনের (টিটিএফ) প্রতিনিধি দল।

বৃহস্পতিবার (২ ফেব্রুয়ারি) তাইওয়ান টেক্সটাইল ফেডারেশনের (টিটিএফ) সভাপতি জাস্টিন হুয়াং এর নেতৃত্বে ওই প্রতিনিধি দলটি বিজিএমইএ সভাপতি ফারুক হাসানের সঙ্গে সাক্ষাৎকালে এই অভিমত ব্যক্ত করেন।

>> আরও পড়ুন: ‘২০৩০ সালে বিশ্বের নবম বৃহত্তম ভোক্তা বাজার দখল করবে বাংলাদেশ’

বৈঠকে তারা পোশাক ও টেক্সটাইল শিল্প নিয়ে পারস্পরিক স্বার্থ সংশ্লিষ্ট নানা বিষয় নিয়ে আলোচনা করেন। সেই সঙ্গে অর্থপূর্ণ ব্যবসায়িক যোগাযোগ গড়ে তোলার ক্ষেত্রে বাংলাদেশ এবং তাইওয়ানের পোশাক ও বস্ত্র ব্যবসায়ীদের মধ্যে ইন্টারেক্টিভ সংযোগ তৈরি করতে উভয় সমিতি কীভাবে একসঙ্গে কাজ করতে পারে- তা নিয়েও বৈঠকে আলোচনা হয়।

এতে বিজিএমইএ সভাপতি ফারুক হাসান বলেন, বাংলাদেশ বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম পোশাক রফতানিকারক দেশ। অপরদিকে, তাইওয়ান টেক্সটাইল শিল্পে শক্তিশালী একটি দেশ। যে দেশটির বিশেষ করে নন-কটন খাতে যথেষ্ট শক্তি রয়েছে।

>> আরও পড়ুন: জাপানের ব্যবসায়ীদের বাংলাদেশে অটোমোবাইল কারখানা স্থাপনের আহ্বান

বিজিএমইএ সভাপতি বলেন, বাংলাদেশ পোশাক শিল্পে পণ্য বৈচিত্র্যকরণ, বিশেষ করে কটন থেকে নন-কটন পণ্যে বৈচিত্র্যকরণের ওপর, সেই সঙ্গে ভ্যালু-এডেড পণ্যের ওপর জোর দিচ্ছে। সে ক্ষেত্রে তাইওয়ানের ম্যান-মেইড ফাইবার, পলিয়েস্টার ফিলামেন্ট, নাইলন ফাইবার এবং অন্যান্য ফেব্রিক্স উৎপাদনকারী বৃহৎ টেক্সটাইল বাংলাদেশের পোশাক শিল্পখাতের চাহিদা মেটাতে পারে।

এ দিন বৈঠকে বিজিএমইএ, টিটিএফ বাংলাদেশ ও তাইওয়ানের পোশাক এবং টেক্সটাইল ব্যবসায়ীদের মধ্যে সম্পর্ক জোরদারকরণে বাণিজ্য প্রদর্শনী আয়োজনের আগ্রহ প্রকাশ করে, যাতে করে উভয় পক্ষ উইন-উইন পরিস্থিতি তৈরি করতে একসঙ্গে কাজ করে।

সভায় অন্যদের মধ্যে বিজিএমইএ’র সহ-সভাপতি শহিদউল্লাহ আজিম, পরিচালক আসিফ আশরাফ ও আবদুল্লাহ হিল রাকিব ছাড়াও টিটিএফ এর পরিচালক টিমোথি ডব্লিউ ডি টিসো ও প্রচার বিভাগের এমিলি চেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

টিএই/আইএইচ