সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ঢাকা

মুসল্লিদের জায়গা হচ্ছে না বাণিজ্য মেলার মসজিদে

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ২০ জানুয়ারি ২০২৩, ০৮:১৭ পিএম

শেয়ার করুন:

মুসল্লিদের জায়গা হচ্ছে না বাণিজ্য মেলার মসজিদে

ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলায় করা হয়েছে একটি অস্থায়ী মসজিদ। মসজিদটিতে জায়গা কম হওয়ায় নামাজের জন্য দীর্ঘক্ষণ অপেক্ষা করতে হচ্ছে মুসল্লিদেরকে। আসর ও মাগরিবের ৪-৫টা পর্যন্ত জামাত অনুষ্ঠিত হতে দেখা গেছে। মেলায় নামাজের জায়গা আরও প্রশস্থ করার দাবি জানিয়েছেন মুসল্লিরা।

শুক্রবার (২০ জানুয়ারি) মাগরিবের সময় অস্থায়ী মসজিদটিতে দেখা যায় সন্ধ্যা ৬টা ১০ মিনিটে মাগরিবের তৃতীয় জামায়াত অনুষ্ঠিত হয়। তার আগে আরও দুইটা জামাত অনুষ্ঠিত হয়। এর পরেও আরেকটি জামাত অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা। মসজিদের মাইকে ইমাম সাহেব মুসল্লিদেরকে নফল নামাজের নিয়ত না করার জন্য অনুরোধ করছেন।


বিজ্ঞাপন


রেজাউল নামের এক মুসল্লি বলেন, এত বড় একটা মেলায় এত ছোট নামাজের জায়গা রাখা উচিৎ হয়নি। নামাজের জায়গা আরও বড় রাখার দরকার ছিল। আমরা দাবি জানাচ্ছি সামনে যেন আরও বড় করে নামাজের জায়গা রাখা হয়। 

আসাদুজ্জামান নামে আরেক মুসল্লি বলেন, মাগরিবের নামাজের এমনিতেই সময় অনেক কম থাকে। তৃতীয়-চতুর্থ জামায়াত করতে সময় চলে যাওয়ার উপক্রম। তাই কর্তৃপক্ষের উচিত আরও বড় নামাজের জায়গা রাখা।

Trade-Fair

পুরুষের নামাজের জায়গার বাম পাশেও ছোট অস্থায়ী মসজিতে মহিলাদের নামাজের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। তবে সেখানে তুলনামূলক ভিড় কম ছিল।


বিজ্ঞাপন


এদিকে শুক্রবার সকালের দিকে দর্শনার্থী কিছুটা কম থাকলেও বেলা গড়াতেই জমে উঠেছে বাণিজ্য মেলা প্রাঙ্গণ। সন্ধ্যা হতে যেন তিল ধারণের ঠাঁই নেই মেলায়। কেনাবেচাও হয়েছে গত কয়েক দিনের তুলনায় বেশি।

মেলা ঘুরে দেখা গেছে, মেলার অভ্যন্তরীণ প্যাভিলিয়ন ও স্টলগুলো কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে গেছে। দেশীয় পোশাক, হস্তশিল্পজাত পণ্য, সাজসজ্জার সামগ্রী, পাটজাত পণ্য, প্লাস্টিক, মেলামিন, আসবাব ও কার্পেটসহ গৃহসজ্জার বিভিন্ন সরঞ্জাম, ব্যাগ-জুতাসহ চামড়াজাত পণ্য, প্রক্রিয়াজাত খাদ্য, ইলেকট্রনিক পণ্য, স্টেশনারি, ক্রোকারিজ ও ইমিটেশন জুয়েলারি পণ্যের স্টলের সামনে ক্রেতাদের বেশি ভিড় লক্ষ্য করা গেছে। ব্লেজারসহ অন্যান্য শীতের কাপড়ে দেওয়া হয়েছে বিশেষ ছাড়। এর ফলে বেড়েছে কেনাবেচা।

দর্শনার্থীরা বলছেন, মেলার সরকারি ছুটির দিন থাকায় লোকজন বেশি। ভিড় ঠেলে কেনাকাটা করতে হয়েছে। তবে সব কিছু একসঙ্গে পেয়ে ভালো লাগছে। মেলা ঘুরতে আসা একজন বলেন, একটু দূরে হওয়ায় মেলায় আসতে অসুবিধা হয়েছে। তবে মেলায় আসার পর পণ্য দেখে ও কম দামে কিনতে পেরে খুব ভালো লাগছে।

টিএই/এএস

ঢাকা মেইলের খবর পেতে গুগল নিউজ চ্যানেল ফলো করুন

সর্বশেষ
জনপ্রিয়

সব খবর