মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ঢাকা

হুন্ডি ঠেকাতে হার্ডলাইনে বাংলাদেশ ব্যাংক

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১৭ নভেম্বর ২০২২, ১০:৫৩ এএম

শেয়ার করুন:

হুন্ডি ঠেকাতে হার্ডলাইনে বাংলাদেশ ব্যাংক

বৈধপথে প্রবাসী আয় (রেমিট্যান্স) দেশে আনতে বিদেশে থাকা বাংলাদেশিদের উৎসাহিত করতে নানা ধরণের উদ্যোগ নিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। অন্যদিকে অবৈধ পথে দেশে আনাকে নিরুৎসাহিত করার পাশাপাশি হুন্ডির বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থানে যাওয়ার ঘোষণা দেয়া হয়েছে। 

এরই অংশ হিসেবে এ পর্যন্ত মোবাইল ব্যাংকিংয়ের পাঁচ হাজারের বেশি এজেন্টশিপ বাতিল করা হয়েছে। এবার এসব এজেন্টের সুবিধাভোগীদের হিসাব জব্দ করার উদ্যোগ নিয়েছে বাংলাদেশ ফাইন্যান্সিয়াল ইন্টেলিজেন্স ইউনিট (বিএফআইইউ)। 


বিজ্ঞাপন


বুধবার (১৬ নভেম্বর) হুন্ডির মাধ্যমে রেমিট্যান্স পেয়েছে, এমন সন্দেহভাজন ২৩০টি হিসাব জব্দ করা হয়েছে। ভবিষ্যতে আইনি ব্যবস্থা নেওয়ারও হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়েছে।

অন্যদিকে সচেতনাতামূলক কার্যক্রমের অংশ হিসেবে বাংলাদেশ ব্যাংক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিও প্রকাশ করেছে। যেখানে হুন্ডির কুফল ও বৈধপথে টাকা পাঠানোর বিষয়ে প্রবাসীদের প্রতি আহ্বান জানানো হয়েছে।

জানা গেছে, বিএফআইইউ সব ব্যাংক এবং মোবাইলে আর্থিক সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান (এমএফএস) প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে যৌথভাবে কাজ করে এ ধরনের লেনদেন শনাক্ত করছে। 

সামনের দিনগুলোতে অবৈধ উপায়ে অর্থ পাঠাবে না, এমন শর্তে ২৩০টি হিসাব আবার সচল করা হবে। এ বিষয়ে সচেতনতা বাড়ানো হবে। এরপরও হুন্ডি এসেছে প্রমাণিত হলে পুরো অর্থ রাষ্ট্রের অনুকূলে বাজেয়াপ্ত হবে। একই সঙ্গে সুবিধাভোগীর বিরুদ্ধে মামলাসহ বিভিন্ন আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে।


বিজ্ঞাপন


জানা গেছে, বিএফআইইউর আগে কয়েক লাখ এজেন্টের তথ্য বিশ্নেষণ করে হুন্ডির সঙ্গে জড়িত সন্দেহে সারাদেশের ৫ হাজার ৪১৯ এমএফএসকে চিহ্নিত করে।

এমএফএস প্রতিষ্ঠানগুলো এসব এজেন্টশিপ বাতিল করে। পরে এ তালিকা দেওয়া হয় পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগকে (সিআইডি)। এর ভিত্তিতে সিআইডি ইতোমধ্যে ৫টি মামলা করেছে। এ ছাড়া কয়েকজন ব্যক্তিকে আটক করেছে। সংস্থাটি ওই তালিকার ভিত্তিতে আরও যাচাই-বাছাই করে ব্যবস্থা নেওয়ার প্রক্রিয়ায় রয়েছে।

এদিকে হুন্ডির বিরুদ্ধে সচেতনতা বাড়াতে বাংলাদেশ ব্যাংক বুধবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে সতর্ক করেছে। সেখানে বলা হয়, প্রবাসী বাংলাদেশি ও তাদের প্রিয়জনদের জানানো যাচ্ছে যে কষ্টার্জিত বৈদেশিক মুদ্রা ব্যাংকিং চ্যানেলের বাইরে (হুন্ডি বা অন্য কোনও অবৈধ পথে) পাঠানো আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ। এতে দেশ ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

বাংলাদেশ ব্যাংক তাদের উদ্দেশে বলেছে, ‘দেশের বাইরে অর্জিত মূল্যবান বৈদেশিক মুদ্রা হুন্ডি বা অন্য কোনও পথে না পাঠিয়ে ব্যাংকিং চ্যানেলে পাঠান। দেশ গড়ায় মূল্যবান অবদান রাখুন। আপনার প্রিয়জনকে ঝুঁকিমুক্ত ও নিরাপদ রাখুন।

বিইউ/এএস

ঢাকা মেইলের খবর পেতে গুগল নিউজ চ্যানেল ফলো করুন

সর্বশেষ
জনপ্রিয়

সব খবর