শনিবার, ২৫ মে, ২০২৪, ঢাকা

স্ত্রীর স্বীকৃতি দিয়ে বাড়িতে ওঠানোর কথা বলায় নির্যাতন

জেলা প্রতিনিধি
প্রকাশিত: ২৫ মে ২০২৩, ০২:৪৮ পিএম

শেয়ার করুন:

স্ত্রীর স্বীকৃতি দিয়ে বাড়িতে ওঠানোর কথা বলায় নির্যাতন
অভিযুক্ত খালিদ মৃধা

প্রেমের সম্পর্কে বিয়ে। বিয়ে করার পর স্ত্রীর মর্যাদা দিয়ে বাড়িতে না নিয়ে উল্টো মারধর করেছেন স্ত্রীকে। এমন অভিযোগ অভিযোগ উঠেছে খালিদ মৃধা নামে এক যুবকের বিরুদ্ধে।

মঙ্গলবার (২৩ মে) মেয়েটির মা শিবচর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন।


বিজ্ঞাপন


শিবচর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

অভিযুক্ত খালিদ মৃধা শিবচর উপজেলার দ্বিতীয়খন্ড ইউনিয়নের মৃধা কান্দি গ্রামের পান্না মৃধার ছেলে। ভুক্তভোগী জোসনা বেগম একই ইউনিয়নের মোজাফরপুর এলাকার মোসলেম মাদবরের মেয়ে।

ভুক্তভোগী ও অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, পূর্ব পরিচয়ের সূত্র ধরে জোসনার সঙ্গে মুঠোফোনে কথা হয় একই ইউনিয়নের খালিদ মৃধার। কথা বলার একপর্যায়ে দুজনের মধ্যে প্রেমের সম্পর্কে তৈরি হয়। পরে দুজনের সম্মতিতে গত বছরের ২৮ ডিসেম্বর বিবাহ করেন তারা। এতোদিন বিয়ের বিষয়টি খালিদ তার পরিবার থেকে গোপন রাখলেও কয়েকদিন আগে খালিদের পরিবার বিয়ের বিষয়টি জানতে পারে। এতেই বিপত্তির সৃষ্টি হয়। কোনোভাবেই জোসনাকে মেনে নিতে নারাজ তারা। পরে এই নিয়ে জোসনার সঙ্গে খালিদের বিরোধের সৃষ্টি হয়। এই বিরোধকে কেন্দ্র করে গত ২২ মে রাত ৯টার দিকে জোসনার দুলাভাইয়ের বাড়ি  (পাচ্চর ইউনিয়নের বৈকন্ঠপুর) বসে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে খালিদ জোসনাকে মারধর করেন। এতে জোসনা আহত হন। পরে জোসনাকে উদ্ধার করে তার আত্মীয় স্বজনরা শিবচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ভর্তি করেন। বর্তমানে জোসনা শিবচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স চিকিৎসাধীন রয়েছে। এই ঘটনায় মেয়েটির মা শিবচর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

মেয়েটির মা রুকিয়া বেগম বলেন, আমার মেয়েকে বিয়ে করে খালিদ তার বাড়িতে নিয়ে যাচ্ছে না। এখন সে আর তার পরিবার তালবাহানা শুরু করেছে। আমার মেয়ে তাকে বাড়িতে উঠানোর কথা বলতেই মারধোর শুরু করে। আমি এ ঘটনার তদন্ত সাপেক্ষ বিচার চাই।


বিজ্ঞাপন


এবিষয়ে যোগাযোগ করতে খালিদের মুঠোফোনে কল দিলে তার নম্বরটি বন্ধ পাওয়া যায়।

ওসি মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন বলেন, আমরা এ বিষয়ে একটি অভিযোগ পেয়েছি। মেয়েটির মা থানায় লিখিত অভিযোগ করেছে। তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

টিবি

ঢাকা মেইলের খবর পেতে গুগল নিউজ চ্যানেল ফলো করুন

সর্বশেষ
জনপ্রিয়

সব খবর