সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ঢাকা

পরশুরামে আওয়ামী লীগ নেতাকে পিটিয়ে হত্যার চেষ্টা, আটক ৭

জেলা প্রতিনিধি
প্রকাশিত: ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১০:০২ এএম

শেয়ার করুন:

পরশুরামে আওয়ামী লীগ নেতাকে পিটিয়ে হত্যার চেষ্টা, আটক ৭
ছবি : ঢাকা মেইল

ফেনীর পরশুরামে উপজেলা আওয়ামী লীগের দলীয় কোন্দলের জের ধরে অনাদি রঞ্জন সাহাকে নামের প্রবীণ এক নেতাকে রড দিয়ে আঘাত করে হত্যার চেষ্টা চালিয়েছে প্রতিপক্ষের লোকজন। 

গতকাল বৃহস্পতিবার (২ ফেব্রুয়ারি) দিনগত রাত সাড়ে ৮টার দিকে উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ের সামনে এ ঘটনা ঘটে। রাতেই পুলিশ বিলোনীয়া বন্দর শ্রমিক নেতা ইব্রাহিমসহ সাতজনকে আটক করেছে। 


বিজ্ঞাপন


আটক শ্রমিক নেতা ইব্রাহিম পরশুরাম পৌরসভার মেয়র নিজাম উদ্দিন আহমেদ চৌধুরী সাজেলের ঘনিষ্ঠজন।

গ্রেফতার অন্যরা হলেন—দক্ষিণ কোলাপাড়া গ্রামের  মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ (মোটা মাসুদ), সলিয়া গ্রামের রফিকুল ইসলাম, বেড়াবাড়িয়া গ্রামের মো. ইয়াকুব (ভূট্টু), উত্তর গুথুমা গ্রামের মিজানুর রহমান চৌধুরী, উত্তর গুথুমা গ্রামের জাহিদুল ইসলাম (বাবু), সলিয়া গ্রামের আব্দুল মান্নান।

আহত রঞ্জন সাহা উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি দায়িত্বে রয়েছেন। 

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রঞ্জন সাহা জানান, সলিয়া এলাকার ফয়েজ আহম্মদ বুলু মিয়ার ছেলে আমাকে ফোন দিয়ে বলে মেয়র (সাজেল চৌধুরী) আপনাকে ডাকছে, অফিসে আসেন। খবর পেয়ে আমি উপজেলা আওয়ামী লীগের অফিসের সামনে আসলেই আনোয়ার লোহার রড় দিয়ে আমাকে পেটাতে থাকে। এক পর্যায়ে রক্তাক্ত অবস্থায় আমাকে উদ্ধার করে লোকজন হাসপাতালে নিয়ে আসে। 


বিজ্ঞাপন


পরশুরাম উপজেলা স্বাস্থ্য আরএমও ডা. রবিউল ইসলাম বলেন, রঞ্জন সাহার পায়ের একাধিক স্থানে রডের আঘাত রয়েছে। পায়ের একাদিক জায়গায় রগের ওপর আঘাত রয়েছে। উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ফেনী জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

পরশুরাম উপজেলা যুবলীগের সভাপতি ইয়াসিন শরীফ মজুমদার বলেন, হামলাকারী আনোয়ার একজন মাদক কারবারি। তাকে সবাই পরশুরাম পৌরসভার মেয়র সাজেলের সহযোগী হিসেবেই জানে। 

পরশুরাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাইফুল ইসলাম জানান, খবর পেয়ে পুলিশ রঞ্জন সাহাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করায়। এ ঘটনায় পুলিশ প্রাথমিক তথ্য সংগ্রহ করেছে। 

এ বিষয়ে বক্তব্য জানতে পরশুরাম পৌরসভার মেয়র ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নিজাম উদ্দিন আহমেদ চৌধুরী সাজেলকে মোবাইল ফোনে বারবার চেষ্টা করেও পাওয়া যায়নি। 

উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার দলীয় কোন্দলকে কেন্দ্র করে পরশুরাম উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কামাল উদ্দিন মজুমদার এবং উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পৌরসভার মেয়র নিজাম উদ্দিন আহমেদ চৌধুরী সাজেল পাল্টাপাল্টি সংবাদ সম্মেলন করে পরস্পরকে নানা বিষয়ে দোষারোপ করেন।

প্রতিনিধি/এইচই

ঢাকা মেইলের খবর পেতে গুগল নিউজ চ্যানেল ফলো করুন

সর্বশেষ
জনপ্রিয়

সব খবর