গাজীপুরে সাবেক স্ত্রীকে কুপিয়ে হত্যা, পোশাকশ্রমিকের মৃত্যুদণ্ড

জেলা প্রতিনিধি
গাজীপুর
প্রকাশিত: ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ০৪:৪৭ পিএম
গাজীপুরে সাবেক স্ত্রীকে কুপিয়ে হত্যা, পোশাকশ্রমিকের মৃত্যুদণ্ড
ছবি : ঢাকা মেইল

গাজীপুরের কাশিমপুরে সাবেক স্ত্রীকে কুপিয়ে হত্যার দায়ে অভিযুক্ত মো. সাইফুল ইসলাম ওরফে শরিফুল (৪৫) পোশাকশ্রমিকের মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে আদালত। বৃহস্পতিবার (১ ডিসেম্বর) দুপুরে জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মমতাজ বেগম এ রায় দেন। এ সময় আদালতে আসামি উপস্থিত ছিলেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত মো. সাইফুল ইসলাম ওরফে শরিফুল নীলফামারী জেলার সদর থানার রামকলা মৌলভীপাড়া এলাকার নুর আলমের ছেলে। তিনি গাজীপুর মহানগরীর কাশিমপুর থানাধীন সারদাগঞ্জ এলাকায় ভাড়া বাসায় থেকে স্থানীয় জিএসএম গার্মেন্টসের প্রিন্টিং শাখায় ডাইং ক্লিনারের কর্মী হিসেবে কাজ করতেন।

নিহত মোহছেনা বেগম রংপুর জেলার পীরগাছা থানার সৈয়দপুর গ্রামের মজিবুর রহমানের মেয়ে। তিনি গাজীপুর মহানগরীর কাশিমপুর থানাধীন সারদাগঞ্জের রুহুল আমিনের বাড়িতে ৩২ নম্বর কক্ষে ভাড়ায় থেকে স্থানীয় একটি কারখানায় কাজ করতেন।

মামলা ও আদালত সূত্রে জানা গেছে, গাজীপুর সিটি করপোরেশনের কাশিমপুরের সারদাগঞ্জ এলাকায় স্থানীয় রুহুল আমিনের ভাড়াটিয়া সাইফুল ইসলাম ওরফে শরীফুল তার স্ত্রী মোহছেনা বেগমকে নিয়ে বসবাস করতেন। গত ২০২০ সালের ৭ ডিসেম্বর সকাল সাড়ে ৭টার দিকে তালাক দেওয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে শরীফুল তার স্ত্রী মোহছেনাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে ও জবাই করে হত্যা করেন। 

পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে অভিযুক্ত শরীফুলকে গ্রেফতার ও মোহছেনার মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠায়। এ ঘটনায় ভিকটিমের ভাই সাদ্দাম হোসেন বাদী হয়ে কাশিমপুর থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। 

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা উপ-পরিদর্শক (এসআই) তাপস কুমার ওঝা তদন্ত শেষে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন। 

আদালতের বিচারক শুনানি শেষে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় বৃহস্পতিবার দুপুরে এক জনাকীর্ণ আদালতে শরীফুলকে মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দেন। এ মামলায় ১৫ জন সাক্ষী তাদের সাক্ষ্য দেন। আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে মামলা পরিচালনা করেন অ্যাডভোকেট মকবুল হোসেন কাজল। রায়ে বাদীপক্ষ ও আইনজীবীরা সন্তোষ প্রকাশ করেন।

প্রতিনিধি/এইচই