রোববার, ১৬ জুন, ২০২৪, ঢাকা

দেশের কাঁচা বাজার ধরতে ব্যস্ত যশোরের সবজি চাষিরা

জেলা প্রতিনিধি
প্রকাশিত: ২৯ অক্টোবর ২০২২, ১২:২৯ এএম

শেয়ার করুন:

দেশের কাঁচা বাজার ধরতে ব্যস্ত যশোরের সবজি চাষিরা

প্রকৃতি জানান দিচ্ছে শীতে আগাম বার্তা। রাতে হালকা হালকা ঠান্ডা অনুভূত করছে শীত। কাকডাকা ভোরে কুয়াশার চাঁদর মাড়িয়ে শীতকালীন শাক-সবজি চাষে ব্যস্ত সময় পার করছেন যশোরের চাষিরা। এবছর জেলাতে ১৮ হাজার হেক্টর জমিতে সবজি চাষের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে। ইতোমধ্যে ৫ হাজার হেক্টর জমিতে বিভিন্ন জাতের সবজি চাষ হয়েছে। এক থেকে দেড় মাসের ভেতর এসব সবজি সারা দেশের বাজার দখল করবে।

কৃষকরা বলছেন, বড় ধরনের প্রাকৃতিক দুর্যোগ না হলে রেকর্ড পরিমাণ আগাম সবজি উৎপাদন হবে যশোরে। আগাম এই সবজি জেলার চাহিদা মিটিয়ে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে চলে যাবে।


বিজ্ঞাপন


সরেজমিনে দেখা গেছে, আগাম শীতকালীন সবজি চাষের জন্য পুরোদমে চলছে মাঠ প্রস্তুত, বীজ বপন, চারা রোপণ ও পরিচর্যার কাজ। বিস্তীর্ণ মাঠজুড়ে এখন শুধু সবুজের সমারোহ।

জানা যায়, যশোরে সাতমাইল, চুড়ামনকাটি, বারিনগর, হৈবতপুর, কাশিমপুর, বন্দবিলা, লেবুতলা, নোঙরপুর, ইছালি ইউনিয়নসহ বিভিন্ন এলাকার আগাম শীতকালীন সবজি চাষ হচ্ছে। মাঠজুড়ে চাষ হচ্ছে বাঁধাকপি, ফুলকপি, শিম, মুলা, লালশাক, পালংশাক, সবুজ শাকসহ নানা ধরনের সবজি।

সাবাসপুর গ্রামের কৃষক রেজাউল ইসলাম ঢাকা মেইলকে বলেন, ’৭ বিঘা জমিতে মুলা চাষ করেছি। তিন বিঘা জমিতে বাঁধাকপির চাষের প্রস্তুতি চলছে। গতবছর মুলা ও বাঁধাকপিতে ভালো লাভ করেছি। দুর্যোগ না হলে আল্লাহ রহমতে ভালো টাকা পাব।’

বীরনারায়নপুর গ্রামের ফুলকপি চাষি আরিফুজ্জামান বলেন, ’ফুলকপি, শিম, মুলা, লালশাক-পালংশাক, চাষ করছি ৫ বিঘা জমিতে। শীতকালীন সবজি উৎপাদনে উপযুক্ত সময়ের আগেই আমরা সবজি বাজারে তুলতে চাই। এ জন্য একটু আগেভাগে সবজি চাষ শুরু করেছি।’


বিজ্ঞাপন


আবদুলপুর গ্রামের চাষি আমিন উদ্দিন বলেন, ’দেড় বিঘা জমিতে ফুলকপি চাষ করেছি। যা শীতে উঠবে। আশা করছি সবজির দাম ভালো পাব।’

যশোর সদর উপজেলা কৃষি অফিসার শেখ সাজ্জাদ হোসেন বলেন, ’এখন যে আবহাওয়া আছে; তাতে তেমন কোনো প্রভাব পড়বে না সবজিতে। যদি ভারী বৃষ্টিপাত হয় তাহলে ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা আছে। কৃষকদের সার্বক্ষণিক পরামর্শ দিচ্ছি।’

যশোর কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরে উপ-পরিচালক মঞ্জুরুল হক ঢাকা মেইলকে বলেন, ’এবছর জেলাতে ১৮ হাজার হেক্টর জমিতে শীতকালীন সবজি চাষের লক্ষ্য ধরা হয়েছে। ইতোমধ্যে ৫হাজার হেক্টর জমিতে আগাম বিভিন্ন জাতের সবজি চাষ হয়েছে ‘

তিনি আরও বলেন, ’কৃষকদের সবধরনের সহযোগিতা ও পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে। আমাদের অফিসাররা মাঠে গিয়ে কৃষকদের সঙ্গে কথা বলছেন।’

প্রতিনিধি/আরআর

ঢাকা মেইলের খবর পেতে গুগল নিউজ চ্যানেল ফলো করুন

সর্বশেষ
জনপ্রিয়

সব খবর