ঝিনাইগাতীতে ভাঙা ইউড্রেন যেন মরণফাঁদ, ঝুঁকি নিয়ে পারাপার

জেলা প্রতিনিধি
শেরপুর
প্রকাশিত: ০৩ আগস্ট ২০২২, ০৮:৫৯ পিএম
ঝিনাইগাতীতে ভাঙা ইউড্রেন যেন মরণফাঁদ, ঝুঁকি নিয়ে পারাপার
ছবি: ঢাকা মেইল

শেরপুরের সীমান্তবর্তী ঝিনাইগাতী-গুরুচরণ দুধনই সড়কের ফুলহাড়ি এলাকায় একটি ইউড্রেনে (আরসিসি-স্ল্যাবের ইউ আকৃতির ছোট কালভার্ট) ফাটল দেখা দিয়েছে। ইউড্রেনের তিনটি স্থানে ঢালাই ধসে গিয়ে রড বের হয়ে আছে। এর মধ্যে ঝুঁকি নিয়ে চলছে মোটরসাইকেল, ইজিবাইক, বাইসাইকেল, রিকশা, ভ্যানসহ ছোট ছোট যানবাহন। এলাকাবাসী বলছেন, এটি ইউড্রেন নয়, যেন ‘মরণফাঁদ’ এ পরিণত হয়েছে।

স্থানীয় পথচারীরা জানান, গত পাঁচ-ছয় বছর আগে ঝিনাইগাতী-গুরুচরণ দুধনই সড়কের উন্নয়নের কাজ করা হয়। ওই সময় এ সড়কের দুইপাশের পানি প্রবাহের জন্য ফুলহাড়ি এলাকায় একটি ইউড্রেন (আরসিসি-স্ল্যাবের ইউ আকৃতির ছোট কালভার্ট) নির্মাণ করা হয়। কিন্তু কয়েক মাস আগে ইউড্রেনটির এক পাশে ধসে গিয়ে রড বের হলে উপজেলা স্থানীয় সরকার প্রকৌশল (এলজিইডি) অধিদপ্তরের মাধ্যমে সংস্কার করা হয়। কিন্তু এখন ইউড্রেনটির মাঝামাঝি ও অপর পাশে ধসে গিয়ে রড বের হয়ে আছে। যদিও মাটি দিয়ে স্থানীয়রা ভরাট করার চেষ্টা করেছিল।

সরেজমিনে দেখা গেছে, ইউড্রেনটি অনেকটা জরাজীর্ণ হয়ে গেছে। মাঝামাঝি ও এক অংশে ধসে গিয়ে রড বের হয়ে আছে। স্থানীয়রা দুর্ঘটনা এড়াতে ইউড্রেনের মাঝে একটি বাঁশের ওপর লাল রঙের কাপড় ঝুঁলিয়ে রেখেছেন। এর মধ্যেই ঝুঁকি নিয়ে ইউড্রেনের ওপর দিয়ে চলাচল করছে ইজিবাইক, মোটরসাইকেল, রিকশা, বাইমোটরসাইকেল ও ট্রলি।

এ সড়কে চলাচলকারী ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা চালক মারুফুর রহমান বলেন, ‘গুরুচরণ দুধনই এলাকা থেকে প্রতিদিন এই পথে চলাচল করি। কিন্তু ছোট সেতুর (ইউড্রেন) যে অবস্থা, তাতে যেকোনো মুহূর্তে বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারে।

একটি বীজ ও কীটনাশক বিপনন কোম্পানিতে চাকুরি করেন সোহেল মাহমুদ ঢাকা মেইলকে বলেন, পতাকাটি না থাকলে আমি ভাঙা অংশে পড়ে যেতাম। দূর থেকে বুঝা যায় না যে, কালভার্টে ভাঙা আছে। দ্রুত সংস্কার না করলে যে কোন মুহূর্তে দুর্ঘটনা ঘটতে পারে।

স্থানীয় স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ভয়েজ অব ঝিনাইগাতীর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি জাহিদুল হক মনির ঢাকা মেইলকে বলেন,  ঝিনাইগাতী-গুরুচরণ দুধনই সড়কের ফুলহাড়ি এলাকায় যে ইউড্রেনটিতে কয়েকটি স্থানে ভেঙে গেছে তা সংস্কার না করলে যে কোন মুহূর্তে পথচারীরা দুর্ঘটনায় পড়তে পারে। তাই ইউড্রেনটি দ্রুত সংস্কারের দাবি জানাচ্ছি।

স্থানীয় ইউপি সদস্য মোছা. জোসনা বেগম বলেন, সত্যিই এ ইউড্রেনের জন্য এ পথে চলাচল করতে ভয় করে। যেকোন সময় বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। দ্রুত সময়ের মধ্যে এটি অপসারণ করে এখানে একটি সেতু র্নিমাণের জন্য জোর দাবি জানিয়েছেন তিনি।

এ বিষয়ে উপজেলা প্রকৌশলী শুভ বসাক বলেন, ইউড্রেনটি অপসারণ করে জরুরি ভিত্তিতে ওইস্থানে বক্সকালভার্ট নির্মাণ করা প্রয়োজন। তাই বক্সকালভার্ট র্নিমাণের জন্য প্রাক্কলন তৈরি করে সংশ্লিষ্ট দপ্তরে পাঠানো হয়েছে। আশা করছি দ্রুত সময়ের মধ্যে এটি টেন্ডার হবে।

এজে