নৈসর্গিক সৌন্দর্যের স্বপ্নভূমি বান্দরবানের রূপরহস্য

সুফল চাকমা বান্দরবান
প্রকাশিত: ০৬ জুলাই ২০২২, ০২:৫৯ পিএম
নৈসর্গিক সৌন্দর্যের স্বপ্নভূমি বান্দরবানের রূপরহস্য

নৈসর্গিক সৌন্দর্যের স্বপ্নভূমি বাংলাদেশের পার্বত্য জেলা বান্দরবান। প্রকৃতির সবুজভূমি সর্বোচ্চ পাহাড় তাজিংডং-কেওক্রাডং পাহাড় এ জেলাকে যেমন করেছে সমৃদ্ধ তেমনি ১১টি ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর জীবন যাত্রার ধরনেও এনে দিয়েছে বৈচিত্রময়তা। জেলার ৭টি উপজেলার প্রতিটিতে রয়েছে পর্যটন প্রেমীদের জন্য দর্শনীয় স্থান।

bandarban

তাজিংডং-কেওক্রাডং-এর সুউচ্চ চূড়ায় কিংবা নীলাচলে মেঘের ভেলা স্পর্শ করা থেকে রহস্য ঘেরা বগালেকের জলে পা ভেজানো, চিম্বুক-নীলাচল পাহাড় থেকে সূর্যাস্ত উপভোগ করাসহ ভ্রমণকারীদের পিপাসা মেটানোর সবরকম উপাদান সমৃদ্ধ এই জেলা। তাই বান্দরবান পার্বত্য জেলাকে বলা হয় বাংলার দার্জিলিং, বাংলার ভূস্বর্গ, পর্যটনের তীর্থভূমি। বাংলাদেশের ৬৪টি জেলার মধ্যে একমাত্র বান্দরবান জেলায় রয়েছে ১১টি জাতিগোষ্ঠীর বসবাস। তাদের নিজস্ব সংস্কৃতির জীবনধারা, সাংস্কৃতির নৃতাত্বিক কৃষ্টি সম্পর্কে জানতে বছরের যেকোনও সময় বান্দরবান ঘুরতে আসতে পারেন অনায়াসে।

debtakhum

বান্দরবানের দর্শনীয় স্থানগুলোর মধ্যে রয়েছে নয়নাভিরাম ‘নীলাচল।’ যেখানে চাইলে আপনি মেঘ ছুঁয়ে দেখতে পারেন কিংবা প্রকৃতির দৃশ্য উপভোগ করতে করতে দেখবেন শুভ্র মেঘের ভেলা।
মেঘলায় ঝুলন্ত সেতু, কেবলকার কিংবা পা ভিজিয়ে একটু কায়াকিংও করতে পারেন মনের আনন্দে। শৈলপ্রপাতে দেখতে পাবেন বম জনগোষ্ঠীর নিজেদের হাতে বানানো কাপড় সাজিয়ে রেখেছেন বিক্রি করার উদ্দেশ্যে। ঝর্নার কলতান প্রকৃতির দৃশ্য উপভোগ করতে করতে বম জাতিগোষ্ঠীর নিজেদের উৎপাদিত বাগানের ফরমালিনমুক্ত স্বল্প দামে মৌসুমী বিভিন্ন ফলের স্বাদ নিতে পারেন।
bandarbanবান্দরবান সদরের বৌদ্ধদের ধর্মীয় প্রতিষ্টান রামা-জাদী, নীলগিরি, নীল দিগন্ত, রোয়াংছড়ির দেবতাখুম, থানচির তমাতুঙ্গী-নাফাখুম, বান্দরবানের এসব স্পট ভালোভাবে ঘুরতে গেলে কমপক্ষে ৪-৫ দিন হাতে সময় নিয়ে আসতে হবে।

পর্বতপ্রেমীরা তাজিংড-কেওক্রাডং যেতে চাইলে শীতকালেই উপযুক্ত সময়। বর্ষাকালে নীলগিরি-চিম্বুক-যাওয়ার পথ চলতে চলতে হঠাৎ যদি কুয়াশার চাদরে ঢাকা পড়ে পুরো রাস্তা অন্ধকার হয়ে যায়, ভয় পাবেন না। গাড়ির হেডলাইট জ্বালিয়ে সাইড করে একটু অপেক্ষা করুন, দেখবেন একটুপরেই ঝুম বৃষ্টি!  কিছুক্ষণ পর বৃষ্টি থেমে গেলে চলতে শুরু করুন দেখবেন রৌদ্র উজ্জ্বল মনে হবে ক্ষণিক আগে বৃষ্টিই হয়নি! দৃষ্টি যতদূর যায়, নীল আকাশ আর শুভ্র মেঘের ভেলা আপনার মন আনন্দে ভরে উঠবে এর সৌন্দর্য তখন অসাধারণ লাগে। যারা প্রাণপ্রকৃতিকে ভালোবাসেন যান্ত্রিক কোলাহলমুক্ত একটু নিরিবিলি কয়েকদিন কাটিয়ে দিয়ে প্রাণসঞ্জীবনী ফিরে পেতে চান অবসরে ঘুরে আসতে পারেন পার্বত্যজেলা বান্দরবান।
bandarbanবান্দরবান জোন ট্যুরিস্ট পুলিশের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আব্দুল হালিম বলেন, সাধারণত ঈদের ছুটিতে ট্যুরিস্ট স্পটগুলোতে পর্যটকদের উপচে পড়া ভিড় হয়ে থাকে। সেই বিষয়টাকে মাথায় রেখে ট্যুরিস্ট পুলিশ, বান্দরবান রিজিয়নের সব সদস্যের ছুটি বাতিল করা হয়েছে। 

‘ঈদের সময় ট্যুরিস্ট স্পটগুলোতে যাতে কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে, সেজন্য সবাইকে সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে। এছাড়া দর্শনার্থীরা পর্যটন স্পটে হয়রানি বা কোনো সমস্যায় পড়লে ট্যুরিস্ট পুলিশ, বান্দরবান জোনের ফেসবুক পেজ ও হট লাইন নম্বরে অভিযোগ দেওয়া যাবে। অভিযোগ পেলে আমাদের কর্মকর্তারা তাৎক্ষণিকভাবে ব্যবস্থা নেবেন।’

প্রতিনিধি/এএ