মাওয়া প্রান্তে আলো ঝলমলে পদ্মা সেতু

জেলা প্রতিনিধি
মুন্সীগঞ্জ
প্রকাশিত: ১৩ জুন ২০২২, ০৯:৪৯ পিএম
মাওয়া প্রান্তে আলো ঝলমলে পদ্মা সেতু
ছবি: ঢাকা মেইল

মুন্সীগঞ্জের লৌহজং উপজেলার মাওয়া প্রান্তে আলো ঝলমলে করে উঠল স্বপ্নের পদ্মা সেতু। সোমবার (১৩ জুন) সাড়ে ৫টার দিকে মাওয়া প্রান্তের ল্যাম্পপোস্টে একসঙ্গে জ্বলে উঠে ২০৭টি বাতি। এতে মাওয়া প্রান্তের সব ক’টি ল্যাম্পপোস্টে বাতি জ্বললো এই প্রথম। 

এর আগে, গত ৪ জুন বিকেলে পরীক্ষামূলকভাবে প্রথম বৈদ্যুতিক বাতি জ্বালানো হয়। ওই দিন সেতুর ১৪ নম্বর থেকে ১৯ নম্বর পিলারের মাঝামাঝিতে ২৪টি ল্যাম্পপোস্টে বাতি জ্বালানো হয়েছিলো। এরপর ১১ জুন পর্যন্ত পরীক্ষামূলকভাবে সেতুর সবকটি বাতি জ্বালানো হয়।

পদ্মা সেতুর নির্বাহী প্রকৌশলী দেওয়ান মো. আব্দুল কাদের জানান, মুন্সীগঞ্জ পল্লী বিদ্যুত সমিতির দেওয়া বৈদ্যুতিক সংযোগের মাধ্যমে এই প্রথম মাওয়া প্রান্তের ২০৭টি ল্যাম্পপোস্টে বাতি প্রজ্জ্বলন করা হয়েছে। এরআগে পরীক্ষামূলকভাবে সেতু জেনারেটরের মাধ্যমে আলো জ্বালানো হয়েছিলো।

এদিকে, ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ এ সেতুর বুকে বিদ্যুত বাতি রয়েছে ৪১৫টি। আর দু’পাশের সংযোগ সড়কে রয়েছে আরও ২০০টি বাতি। গত বছরের ২৫ নভেম্বর মুন্সীগঞ্জের লৌহজং উপজেলার মাওয়া প্রান্তে প্রথম ল্যাম্পপোস্ট বসানোর কাজ শুরু হয়েছিলো। চলতি বছরের ১৮ এপ্রিল এসব ল্যাম্পপোস্ট বসানো ও এরমধ্যে বাতি লাগানোর কাজ শেষ হয়। এরপর পুরো সেতুতে কেবল টানা হয়েছে। গত ২৪ মে প্রথমে শরীয়তপুর পল্লী বিদ্যুত সমিতি সেতুকে বিদ্যুত সংযোগ দেয়। ওই দিন রাত সাড়ে ৮টার দিকে সেতু কর্তৃপক্ষের কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে শরীয়তপুরের জাজিরা উপজেলার নাওডোবা প্রান্তে ৪২ নম্বর পিয়ারে এ বিদ্যুত সংযোগ প্রদানের কাজ শেষ হয়। এরপর মুন্সীগঞ্জ পল্লী বিদ্যুত সমিতিও সেতুতে বিদ্যুত সংযোগ দেওয়া হয়। এরপর ৩০ মে প্রতিটি ল্যাম্পপোস্টে বিদ্যুত সংযোগ দেওয়ার কাজ শেষ করে মুন্সীগঞ্জ ও শরীয়তপুর পল্লী বিদ্যুত সমিতি।

উল্লেখ্য, আগামী ২৫ জুন সকাল ১০টায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা স্বপ্নের পদ্মা সেতু উদ্বোধন করতে যাচ্ছেন। পরদিন সকাল ৬টা থেকে যানবাহন চলাচলের জন্য খুলে দেওয়ার মধ্য দিয়ে দক্ষিণবঙ্গের যোগাযোগ ব্যবস্থার নতুন দ্বার উম্মোচন হবে।

প্রতিনিধি/এইচই