শনিবার, ২০ জুলাই, ২০২৪, ঢাকা

আজীবন বহিষ্কার হওয়া ববি শিক্ষার্থীর আমরণ অনশন

জেলা প্রতিনিধি, বরিশাল
প্রকাশিত: ১০ জুলাই ২০২৪, ০৫:৩৮ পিএম

শেয়ার করুন:

আজীবন বহিষ্কার হওয়া ববি শিক্ষার্থীর আমরণ অনশন

আজীবন বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহারের দাবিতে আমরণ অনশনে বসেন বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় (ববি) শিক্ষার্থী যাদব কুমার ঘোষ।

বুধবার (১০ জুলাই) বেলা ১১টা থেকে দুপুর ৩টা পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনের নিচতলায় ব্যানার টানিয়ে এ কর্মসূচি পালন শুরু করেন তিনি।


বিজ্ঞাপন


এরপর ববি শিক্ষকরা এসে তার দাবি মেনে নেওয়া হবে জানালে অনশন তুলে নেন যাদব।

যাদব কুমার ঘোষ ববির ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক বাংলা বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী।

আমরণ অনশনে বসা শিক্ষার্থীর দাবি তাকে অন্যায়ভাবে বহিষ্কার করা হয়েছে। তিনি এর প্রতিবাদ জানিয়ে বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছেন। আর বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন জানিয়েছেন, অসদুপায় অবলম্বন ও পরীক্ষা কক্ষে শিক্ষকের সঙ্গে অশোভন আচরণের দায়ে ওই শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিয়েছে কর্তৃপক্ষ। তবে ববি উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ বদরুজ্জামান ভূঁইয়া বলেন, বিষয়টি সমাধান হয়ে গেছে। ওই শিক্ষার্থীর ছাত্রত্ব ফিরিয়ে দেওয়া হবে। তাই তিনি অনশন তুলে নিয়েছেন।

আরও পড়ুন

পরীক্ষায় অসদাচরণের দায়ে আজীবন বহিষ্কার ববি শিক্ষার্থী 

শ্রেণিকক্ষে ফেরার জন্য উপাচার্য বরাবর লেখা একটি আবেদনে যাদব কুমার ঘোষ দাবি করেছেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি সাহিত্য সংগঠনের সঙ্গে যুক্ত থাকা এবং বিভাগের সংশ্লিষ্টতায় পূজার আয়োজন করা, অন্য শিক্ষকদের স্নেহভাজন হওয়ায় ক্রমাগত ক্ষোভসহ বিভিন্ন কারণে শিক্ষক সাকিবুল হাসান তাকে দেখতে পারতেন না। আর সেই ক্ষোভ থেকেই তার বিরুদ্ধে এরকম কঠোর সিদ্ধান্ত নিতে ওই শিক্ষক সর্বোচ্চ চেষ্টা চালিয়েছেন। এছাড়া অসদুপায় অবলম্বনের কথা স্বীকার করলেও শিক্ষকের সঙ্গে অসদাচরণের অভিযোগটি ভিত্তিহীন বলে দাবি করেছেন যাদব।

ববির বাংলা বিভাগ সূত্রে জানা যায়, যাদব কুমার ঘোষ ৪র্থ বর্ষের দ্বিতীয় মিডটার্ম পরীক্ষায় নকল করে লিখছিলেন। এ সময় প্রধান কক্ষ পরিদর্শক শিক্ষক সাকিবুল ইসলাম তাকে হাতেনাতে ধরে ফেলেন। এ সময় শিক্ষক তার থেকে উত্তরপত্র নিয়ে যেতে চাইলে যাদব উত্তরপত্র না দিয়ে উলটো শিক্ষকের সঙ্গে জোর-জবরদস্তিসহ অসদাচরণ করেন। এরপর ঘটনার তদন্ত শেষে বিশ্ববিদ্যালয়ের ৮৩তম সিন্ডিকেট সভায় ওই শিক্ষার্থীর ছাত্রত্ব বাতিলের সুপারিশে বহিষ্কার করা হয়। বিষয়টি মঙ্গলবার অবগত হওয়ার পর বুধবার অনশনে বসেন যাদব।

এ বিষয়ে জানতে ববির সহকারী অধ্যাপক মোহাম্মদ সাকিবুল হাসানের সঙ্গে মোবাইল ফোনে কল দিয়ে ও ক্ষুদে বার্তা পাঠিয়েও তাকে পাওয়া যায়নি।

প্রতিনিধি/এসএস

ঢাকা মেইলের খবর পেতে গুগল নিউজ চ্যানেল ফলো করুন

সর্বশেষ
জনপ্রিয়

সব খবর