সোমবার, ৪ মার্চ, ২০২৪, ঢাকা

অটোরিকশার চেয়েও ছোট এই ইলেকট্রিক কার

অটোমোবাইল ডেস্ক
প্রকাশিত: ২৯ মে ২০২৩, ০১:১৩ পিএম

শেয়ার করুন:

অটোরিকশার চেয়েও ছোট এই ইলেকট্রিক কার

অটোরিকশার চেয়েও ছোট আকারের ইলেকট্রিক কার বাজারে এলো। এই গাড়ি এনেছে ফ্রান্সের অটোমোবাইল নির্মাতা প্রতিষ্ঠান সিট্রয়েন। মডেল মাই অ্যামি বুগি। 

এই ছোট আকারের ইলেকট্রিক গাড়ি যে কেউ সামলাতে পারবে। এর মেইটেনেন্স খরচও কম। লিমিটেড এডিশনে এই গাড়ি বাজারে এসেছে। 


বিজ্ঞাপন


carবিশ্বের ১০টি দেশে আপাতত এই গাড়ি  পাওয়া যাবে। যার মধ্যে অধিকাংশ দেশ ইউরোপের। গাড়ির বৈশিষ্ট্য এবং ডিজাইন বেশ চমকপ্রদ। বর্তমানে গাড়ি বাজারে প্রত্যেকেরই পছন্দ কম্প্যাক্ট গাড়ি। সেই চাহিদার কথা মাথায় রেখেই একদম আল্ট্রা কম্প্যাক্ট ডিজাইনে ইলেকট্রিক গাড়ি হাজির করেছে নির্মাতা প্রতিষ্ঠান। 

মাই অ্যামি বুগি লম্বায় ২.৪১ মিটার। চওড়ায় ১.৩৯ মিটার। উচ্চতা ১.৫২ মিটার। গাড়ির কার্ব ওয়েট ৪৮৫ কেজি।

যদিও এই গাড়ি প্রথম লঞ্চ হয় ২০২০ সালে। এটির লিমিটেড এডিশন বাজারে এনেছে সিট্রয়েন। গাড়িটির দাম বাংলাদেশি মুদ্রায় ১২ লাখ টাকার কাছাকাছি। 

carমিনি ইলেকট্রিক গাড়িতে রয়েছে ৫.৪ কিলোওয়াট আওয়অরের ব্যাটারি প্যাক।  যা ফুল চার্জে ৭৪ মিলোমিটার পথ চলতে পারবে। ইলেকট্রিক গাড়িটির সর্বোচ্চ গতি ঘণ্টায় ৪৫ কিমি। গাড়িতে রয়েছে ৮ হর্সপাওয়ারের মোটর।


বিজ্ঞাপন


২০২০ সালে এই গাড়ি বাজারে এলো ব্যাপক জনপ্রিয়তা পায়। তখন ক্রেতারা এর পরবর্তী ভার্সন আনার জন্য নির্মাতা প্রতিষ্ঠানটিকে অনুরোধ জানাই। সিট্রয়েন গ্রাহকদের সেই অনুরোধে সাড়া দিয়ে লিমিটেড এডিশনে মাই অ্যামি বুগি গাড়িটি এনেছে। 

২০২২ সালে মাত্র ১৮ মিনিটে এই গাড়ি ৫০ ইউনিট বিক্রি হয়েছিল। 

carবর্তমান গাড়িগুলোতে আমরা যে রকম দরজা দেখতে পাই সেই রকম দরজা নেই ইলেকট্রিক গাড়িতে। পরিবর্তে রয়েছে দরজার বার। দুইটি সিট রয়েছে গাড়িতে। অনেকটা কোয়াড্রিসাইকেলের মতো দেখতে গাড়িটি।

বর্তমানে শহুরে বাসিন্দা, স্টুডেন্ট স্বল্প দূরত্বে ভ্রমণের জন্য সস্তায় পরিবেশ বান্ধব বিকল্প খুঁজছেন তাদের জন্য এই গাড়ি আদৰ্শ। 

ইউরোপের বেশ কিছু দেশে কোয়াড্রিসাইকেল চালানোর জন্য ড্রাইভিং লাইসেন্সের প্রয়োজন হয় না তাই তরুণ তরুণীদের মধ্যে বেশ পছন্দের গাড়ি হয়েছে মাই অ্যামি বুগি।

এজেড

ঢাকা মেইলের খবর পেতে গুগল নিউজ চ্যানেল ফলো করুন

সর্বশেষ
জনপ্রিয়

সব খবর