সোমবার, ১৭ জুন, ২০২৪, ঢাকা

বাইকের টায়ারে হাওয়ার প্রেসার কত রাখা উচিত?

অটোমোবাইল ডেস্ক
প্রকাশিত: ১৬ মার্চ ২০২৩, ০২:২৫ পিএম

শেয়ার করুন:

বাইকের টায়ারে হাওয়ার প্রেসার কত রাখা উচিত?

বাইকের টায়ার ঠিকমত ঘুরলেই কেবল মোটরসাইকেল চলে। এর সঙ্গে ইঞ্জিনসহ অন্যান্য যন্ত্রাংশের কার্যক্ষমতাও নির্ভর করে। সব বাইকেরই টায়ার সংক্রান্ত সমস্যা থাকে। কারণ, বিভিন্ন পরিবেশ ও খারাপ রাস্তার কারণে এর উপর ধকল যায় অনেক বেশি। এছাড়া এদিকে তেমন নজর দেন না অনেক বাইকার।

সাধারণত টায়ার রাবার দিয়ে তৈরি হয়। এর ভিতরের অংশ বাতাসে পরিপূর্ণ থাকে। টায়ারের সাইজ এবং ধারণক্ষমতার উপর প্রেসার নির্ভর করে। বাইকে ভাল গ্রিপ পেতে টায়ারের একটি নির্দিষ্ট তাপমাত্রা প্রয়োজন। তাই সঠিক তাপমাত্রা পেতে নির্ধারিত প্রেসার দিতে হবে।


বিজ্ঞাপন


টায়ার প্রস্ততকারক প্রতিষ্ঠানগুলো সপ্তাহে কমপক্ষে একবার প্রেসার পরিমাপের কথা বলে। কিন্তু এক্সপার্টদের মতে, তা প্রতিদিন পরীক্ষা করা উচিত। বাইক চালানোর আগে বাইকের ভালো নিয়ন্ত্রণ পেতে এবং সমস্যা এড়াতে চাইলে অবশ্যই টায়ার প্রেসার যাচাই করতে হবে।

টায়ারের প্রেসার সম্পর্কে সাধারণত দুটি ভুল করে থাকেন অনেকে। তা হলো— প্রেসার কম দেওয়া ও বেশি দেওয়া। অধিকাংশ রাইডাররাই টায়ারের সঠিক প্রেসার জানেন না। চলুন জেনে নিই বাইকের টায়ারে হাওয়ার প্রেসার কত রাখা উচিত।

কম প্রেসার

টায়ারে কম প্রেসার থাকলে বাইকের গ্রিপ ভালো হয় এবং স্লিপ করার হাত থেকে রক্ষা করে বলে মনে করেন অনেকে। কিন্তু কম প্রেসার টায়ারের অভ্যন্তরীণ তাপমাত্রা বাড়িয়ে দেয়। ফলে টায়ারের আকৃতির ক্ষতি হতে পারে। এটি কর্মক্ষমতা ও নিয়ন্ত্রণ হ্রাস করে।


বিজ্ঞাপন


বেশি প্রেসার

টায়ারে বেশি প্রেসার দেওয়া ঠিক নয়। এটি মোটরসাইকেলের গ্রিপ এবং নিয়ন্ত্রণে সমস্যার সৃষ্টি করে। রাস্তার সঙ্গে ঘর্ষণের পরিমাণ কমিয়ে দেয়। ফলে একজন রাইডার ভাল গ্রিপ পান না এবং ব্রেকিং সিস্টেমে সমস্যা তৈরি করে। এছাড়া সহজেই টায়ার পাংচার হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

আদর্শ টায়ার প্রেসার

সবসময় টায়ারে নির্ধারিত প্রেসার রাখার চেষ্টা করুন। সামনে এবং পিছনে কত পিএসআই প্রেসার রাখতে হবে তা বাইকের পিছনের চাকার আশে পাশেই লেখা আছে। সাধারণত সামনে ২৯ এবং পিছনে ৩৩ পিএসআই রাখাই উত্তম। তবে যাদের ওজন একটু বেশি বা পিলিয়ন নিয়ে চলেন তারা সামনে সর্বোচ্চ ৩৫ এবং পিছনে ৪০ পিএসআই রাখতে পারেন।

bike-tire-pressureটায়ার প্রেসার কীভাবে পরীক্ষা করবেন

টায়ার প্রেসার পরীক্ষার করার যন্ত্র হল গেজ। এজন্য সাধারণত গ্যারেজ বা দোকানে যান অনেকে। কিন্তু এক্ষেত্রে মানের তারতম্য হতে পারে। তাই নিয়মিত টায়ার প্রেসার চেক করতে ভালোমানের একটি গেজ কিনে নিন এবং তা দিয়ে যাচাই করুন। তবে সব সময় একই গেজ ব্যবহার করবেন। কারণ, অনেক সময় গেজের প্রেসারের তারতম্য থাকে।

টায়ার প্রেসার কখন পরিমাপ করবেন

বাইক চালানোর আগে অবশ্যই টায়ারের প্রেসার পরিমাপ করুন। সবসময় একটি প্রেসার গেজ সঙ্গে রাখুন। বিশেষ করে রাতে বা সকালে ঠাণ্ডা অবস্থায় প্রেসার চেক করবেন। কারণ, তাপ গ্যাসের চাপ বৃদ্ধি করে। তাই টায়ার উত্তপ্ত থাকার সময় যাচাই করলে সঠিক প্রেসার পাওয়া যায় না। চালানোর কমপক্ষে তিন ঘণ্টা পর পরিমাপ করা উচিত। টায়ারে হাত দিয়ে বুঝতে পারবেন সেটি গরম না ঠাণ্ডা।

এমএইচটি

ঢাকা মেইলের খবর পেতে গুগল নিউজ চ্যানেল ফলো করুন

সর্বশেষ
জনপ্রিয়

সব খবর