বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই, ২০২৪, ঢাকা

বৈদ্যুতিক গাড়ি

মার্সিডিজের এই গাড়ি চলবে ইলেকট্রিক টার্বো চার্জারে

অটোমোবাইল ডেস্ক
প্রকাশিত: ২১ নভেম্বর ২০২৩, ১২:৫০ পিএম

শেয়ার করুন:

মার্সেডিজের এই গাড়ি চলবে ইলেকট্রিক টার্বো চার্জারে

বিলাসবহুল গাড়ির জগতে জনপ্রিয় নাম মার্সিডিজ। পেট্রোল, অকটেন কিংবা ডিজেল চালিত গাড়ির বাজারে ব্র্যান্ডটি যেমন এগিয়ে, তেমনি ইলেকট্রিক গাড়িতেও থাকতে চায় সবার শীর্ষে। তাইতো বাজারে এলো ইলেকট্রিক টার্বোচার্জারে মার্সিডিজ গাড়ি। 

সম্প্রতি বাজারে এসেছে মার্সিডিজ এএমজি সি৪৩ মডেল। সাধারণ ইলেকট্রিক গাড়ি থেকে আরও একধাপ এগিয়ে মার্সেডিজ বেঞ্জ  আনল নতুন প্রযুক্তির গাড়ি।


বিজ্ঞাপন


মার্সিডিজ সি৪৩ মডেলের গাড়ি চলবে ইলেকট্রিক টার্বোচার্জারে। যেখানে ইলেকট্রিক টার্বোচার্জারে চলবে চার সিলিন্ডারের গাড়ি।

car-main 

এটি ব্যাটারি বা চার্জিং ক্যাবল দিয়ে চলবে না। এএমজি সি৪৩-এর মতো পারফরম্যান্স গাড়িগুলোকে এবার ভিন্নভাবে বিদ্যুতের ব্যবহার করা হয়েছে ।

সি৪২ এএমজি সম্পর্কে সবচেয়ে আলোচিত দিকটি অবশ্যই এর পাওয়ারট্রেন। কারণ এটি তার নতুন বিদ্যুতায়িত চার সিলিন্ডার ইঞ্জিনের মাধ্যমে চলবে। আগে এই সেডান চলত ৬ সিলিন্ডারে। 


বিজ্ঞাপন


কোম্পানি জানিয়েছে, এই প্রযুক্তি আরও জটিল। এতে গাড়িটি একটি বৈদ্যুতিক টার্বোচার্জারের সাহায্য নেবে। আরও বৈদ্যুতিক পাওয়ারের জন্য এই গাড়ির টার্বো চার্জারকে একটি হালকা হাইব্রিড সিস্টেমের সঙ্গে জুড়ে দেওয়া হয়েছে । 

নতুন ইঞ্জিনটি ৪০৮ বিএইচপি শক্তি এবং ৫০০ নিউটন মিটার টর্কসহ অনেক বেশি শক্তি পেয়েছে। আগের ৬ সিলিন্ডারকে এই ইঞ্জিন পিছনে ফেলে দেবে। এই বৈদ্যুতিক টার্বোচার্জার প্রযুক্তিতে এমন কিছু রয়েছে, যা এফ১ রেস কারগুলোতেও দেওয়া হয়।

ড্রাইভিং অভিজ্ঞতা বলছে, পাওয়ার ডেলিভারি এতে অনেক বেশি শার্প। বৈদ্যুতিক টার্বো  এই গাড়ি আগের মতো শক্তিশালী কাজ করবে। এটি একটি পারফরম্যান্স কারের মতো কাজ করতে সক্ষম। 

car_inner

মার্সিডিজ সি৪২ এএমজি একটি ৯ স্পিড স্বয়ংক্রিয় গিয়ারবক্স পায় এবং এতে ফোর ম্যাটিক সিস্টেম রয়েছে, যা দুর্দান্ত গ্রিপ দেয় এবং এটিকে আগের তুলনায় আরও স্থিতিশীল করে তোলে। এটি ছোট ক্ষমতার ইঞ্জিনের সঙ্গে হালকা এবং চটপট শিফটে করতে সক্ষম। দ্রুত গাড়ি গতি বদলালেও গাড়িতে অস্থির অনুভূতি পাবনে না আপনি।  

নতুন এই গাড়িটি দেখতে আরও স্পোর্টিয়ার এবং এই ধরনের গাড়ির ভিড়ের থেকে আলাদা। এই কারে সি-ক্লাসের স্পোর্টিয়ার অনুভূতি পাবেন আপনি। এখানে প্যানামেরিকানা গ্রিল সহ আরও বড় ইনটেক, আলাদা হেডল্যাম্প নজর কাড়বে আপনার। অবশ্যই, কোয়াড একজস্ট পাইপ, পিছনে ডিফিউজার এর আরও কার্যক্ষমতার ইঙ্গিত দেয়।

ভেতরে লেআউটটি একই রখেছে কোম্পানি। তবে আপনি এএমজি থিমযুক্ত গ্রাফিক্স পাবেন এখানে। ফ্ল্যাট-বটম স্টিয়ারিং হুইল একটি মাসল গ্রিপ আপনাকে গাড়ি চালাতে আর আত্মবিশ্বাস দেবে। এতে স্পোর্টস সিট দিয়েছে কোম্পানি। একটি হাই-এন্ড বার্মেস্টার অডিও সিস্টেমের মতো বিলাসবহুল বৈশিষ্ট্যগুলি ছাড়াও প্রত্যাশিত আরও ফিচার দেওয়া হয়েছে গাড়িতে। 

মার্সিডিজ সি৪৩ এমজি গাড়ির দাম এক কোটি টাকারও বেশি। 

এজেড

ঢাকা মেইলের খবর পেতে গুগল নিউজ চ্যানেল ফলো করুন

সর্বশেষ
জনপ্রিয়

সব খবর